হোমরিভিউস

রিভিউঃ ফ্যানে খান- অনিল কাপুরের অভিনয় তুলনাহীন

  | August 03, 2018 20:49 IST
Fanney Khan Review

ফ্যানে খানে ঐশ্বর্য রাই, অনিল কাপুর এবং রাজকুমার রাও। (সৌজন্যে ইউটিউব)

ফ্যানে খান রিভিউঃ বাবা মেয়ের সম্পর্কের গল্প ফ্যানে খান দেখার পর দর্শক নিঃসন্দেহে আবেগ তাড়িত হয়ে পড়বে।

কাস্টঃ অনিল কাপুর, ঐশ্বর্য রাই বচ্চন, রাজকুমার রাও, পিহু সান্দ এবং দিব্যা দত্ত 

পরিচালক: অতুল মাঞ্জেরকর

রেটিং: 2.5 (5 এর মধ্যে)


নব্বইয়ের দশকের বিখ্যাত অর্কেস্ট্রা গায়ক তাঁর পঞ্চাশ বছর বয়সে পৌঁছেও নিজের ব্যর্থতার জন্য কষ্ট পান। স্বপ্ন দেখেন তাঁর মেয়ে একদিন তাঁর স্বপ্ন পূরণ করবে। তাঁর মেয়ের সুরেলা কণ্ঠ থাকলেও সমস্যা অন্য। ডিভার মতো সুন্দর চেহারা তাঁর নেই। যার ফলে প্রতিনিয়ত বডি শেমিং-এর শিকার হতে হয় তাঁকে।


ফ্যানে খানের গল্পটা বেলজিয়ান হিট ছবি এভরিবডি’স ফেমাস! (2000) থেকে গৃহীত।

u9vds9io

সিনেমার বেশ কিছু অংশ মনে হয়েছে অতিরিক্ত টেনে ফেলা হয়েছে, কিন্তু প্রথমবার পরিচালক অতুল মাঞ্জেরকর সিনেমার গল্পে ড্রামাটিক কোর মজবুত রেখেছেন।

বাবা মেয়ের সম্পর্কের গল্প ফ্যানে খান দেখার পর দর্শক নিঃসন্দেহে আবেগ তাড়িত হয়ে পড়বে।

ব্যর্থ মিউজিশিয়ান প্রশান্ত শর্মার চরিত্রে অনিল কাপুরের অভিনয় অত্যন্ত প্রশংসনীয়। সিনেমার শুরুই হয় বদন পে সিতারে গানের রিমেক দিয়ে। কিন্তু এই মানুষটার জীবনে আনন্দ বড্ড স্বল্প স্থায়ী। একদিন সকালে তাঁর চাকরি চলে যায়। স্ত্রীকে (দিব্যা দত্ত) লুকিয়ে জান তিনি বিষয়টা। তারপর বন্ধুর (সতিশ কৌশিক) ট্যাক্সি চালানো শুরু করেন।

প্রশান্তের মেয়ে লতা। তাঁর জন্মের সময় তাঁর বাবা প্রতিজ্ঞা করেন “আমি না হয় মহম্মদ রফি হতে পারিনি কিন্তু আমার মেয়েকে লতা মঙ্গেশকর তৈরি করবোই”। কিন্তু লতার মা বুঝতেই পারেন না স্টার হওয়ার প্রয়োজনীয়তা ঠিক কী?

ssn4gljo

অন্যদিকে গল্পের অপর প্রধান চরিত্র বিখ্যাত সেলিব্রিটি বেবি সিং। লতা ও বেবি সিং-এর জীবন এক পথে এসে মেলে যখন প্রশান্ত বেবিকে অপহরন করে। প্রশান্তকে এই কাজে সহায়তা করে তাঁর প্রাক্তন সহকর্মী অধীর (রাজকুমার রাও)। লতার অ্যালবাম তৈরির জন্য টাকা জোগাড়ের উদ্দেশ্যে প্রশান্ত বেবিকে অপহরণ করে। এরপর গল্প চলতে থাকে আপন খেয়ালে।

ফ্যানি খান সিনেমার কিছু অংশে যুক্তির অভাব রয়েছে বলে মনে হয়েছে। কৌতুকরস যেটুকু আছে তাও যথার্থ নয়। চিত্রনাট্যেও কিছু জায়গায় খামতি থেকে গেছে। কিন্তু অভিনেতা অভিনেত্রীরা তাঁদের নিজস্ব ভূমিকায় অসামান্য অভিনয় করেছেন। নবাগতা পিহু শর্মা লতা চরিত্রে অনন্য।


ঐশ্বর্য রাই বচ্চন এবং রাজকুমার রাও বলিউডের দুই ভিন্ন ধরনের অভিনেতা, জুটি হিসাবে বেমানান। এমন কী, সিনেমায় তাঁদের চরিত্র দুটোও ভিন্ন ধরনের। কিন্তু তবুও তাঁদের মধ্যে যে রোম্যান্স দেখানো হয়েছে তা নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয়।

সব শেষে যেটুকু বলার, সিনেমায় খামতি আছে প্রচুর। কোনও কিছুই পারফেক্ট হয় না। তবে, এই সিনেমাটা দেখে আসতেই পারেন। বলছি শুনুন, ক্ষতি হবে না।


বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
Advertisement
Advertisement