হোমআঞ্চলিক

মানুষের জীবন কঠিন না। মানুষ নিজেই তার জীবনকে জটিল করে তোলে: অপরাজিতা আঢ‍্য

  | October 13, 2018 08:53 IST
Aparajita Auddy

অপরাজিতা আঢ‍্য। (সৌজন্যে ফেসবুক)

সিরিয়াল, সিনেমার অভিনয় ও কিশোর কুমার জুনিয়র নিয়ে অকপট অপরাজিতা আঢ‍্যের সঙ্গে আড্ডার সাক্ষী রইলেন সূর্যেন্দ্র বাগচি।

সিরিয়াল হোক বা সিনেমা দুই মাধ্যমেই তিনি সমানভাবে জনপ্রিয়। পাশাপাশি বিভিন্ন ওয়েব সিরিজেও কাজ করেছেন। তাঁর অমায়িক ব্যবহারেও মুগ্ধ মানুষজন। তিনি অপরাজিতা আঢ্য। তাঁর আসন্ন সিনেমা কিশোর কুমার জুনিয়র নিয়ে তিনি বেশ আশাবাদী। সিরিয়াল, সিনেমার অভিনয় ও কিশোর কুমার জুনিয়র নিয়ে অকপট অপরাজিতা আঢ‍্যের সঙ্গে আড্ডার সাক্ষী রইলেন সূর্যেন্দ্র বাগচি।    

পুজোর আগে একসঙ্গে সিরিয়ালের অভিনয়, কিশোর কুমার জুনিয়রের প্রোমোশন- এই সব কিছু ঠিক কীভাবে সামলাচ্ছেন?

পুজোর আগে অনেকটাই টেনশনের মধ্যে আছি। এত বড় একটা ছবি মুক্তি পাচ্ছে, যথারীতি প্রচুর প্রোমোশনের চাপ রয়েছে। প্রোমোশনের আলাদা আলাদা রকমফের রয়েছে। ইতিমধ্যে দর্শকদের কাছ থেকে নানারকম প্রতিক্রিয়া পাচ্ছি। তাছাড়া নিজেও একটা আলাদারকম উত্তেজনা অনুভব করছি ছবির মুক্তি নিয়ে। 12 তারিখের অপেক্ষায় আছি। বেশ কিছু পুজো প্যান্ডেল উদ্বোধনের আমন্ত্রণ পেয়েছি। এই সব কিছুর মাঝে সিরিয়ালের শুটিং না থাকায় কিছুটা হলেও বাঁচোয়া। নয়তো কোনও দিকেই ঠিক করে সময় দিতে পারতাম না। সব মিলিয়ে এই বছর দুর্গা পুজোর আগের সময়টা খুবই তালেগোলে কাটছে।


প্রত্যেক বছর দুর্গা পুজোর সময় আপনাদের একটা শিডিউল মেনে চলতে হয়। হয়তো শুটিং তাড়াতাড়ি শেষ করার পর তিন দিন বা চার দিনের ব‍্যাঙ্কিং এর চাপ থাকে।


প্রচণ্ড ব‍্যাঙ্কিং এর চাপ থাকে।

"শুধুমাত্র আমোদ আর ব্যবসার জন্য ছবি বানাতে পারি না": কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়

কিন্তু এই বারের ব‍্যাঙ্কিংটা একটু অন্যরকম হয়ে গিয়েছে। এইবার প্রোমোশনগুলো বাকি আছে।

(হেসে) এই সব প্রোমোশনগুলো করে ফেলতে হবে পুজোর আগে।

কিশোর কুমার জুনিয়র ছবিতে অভিনয় করে কেমন লাগছে?- এই প্রশ্নটা অনেকবারই শুনে থাকবেন। প্রাক্তনের পর আবার আপনাকে এই ছবিতে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে কাজ করতে দেখা গেল। আমার প্রশ্নটা হল, কিশোর কুমার জুনিয়র ছবির ট্রেলারে যে মধ্যবিত্ত মানুষের জীবনটাকে তুলে ধরা হয়েছে, সেই মধ্যবিত্ত মানুষটা যখন একজন শিল্পী হতে চায় তখন তাকে ঠিক কতটা সংগ্রাম করতে হয়? তার জীবন ঠিক কতটা কঠিন হয়ে ওঠে? এই সব জিনিসগুলো কি আপনি কোনও ভাবে অনুভব করেছেন এই সিনেমায় অভিনয় করতে গিয়ে ?   

মানুষের জীবন কঠিন না। মানুষ নিজেই তার জীবনকে জটিল করে তোলে। যার জন্য দায়ী মানুষের অফুরন্ত চাহিদা। বর্তমান সময়ে সরল থাকাটাই জটিলতর হয়ে উঠেছে। জটিল হওয়াটা বেশি কঠিন কিছু নয়।

r6fkcvd

প্রোমোশনে কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায় ও প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে অপরাজিতা আঢ‍্য। (সৌজন্যে ইনস্টাগ্রাম)

ঠিক ঠিক।

এ ক্ষেত্রেও সেটাই দেখানো হয়েছে যে, একটা মানুষ যখন নিজের জীবনকে জটিল করে তোলে তখন তার সঙ্গে যুক্ত মানুষগুলোর জীবনও তাদের অনিচ্ছা সত্ত্বেও জটিল হয়ে ওঠে। এই জিনিসটা সেই সব মানুষগুলোর জন্য খুবই কষ্টের। কিন্তু তবুও তারা সব পরিস্থিতিকে হাসি মুখে মেনে নেয় কারণ তারা সেই মানুষটাকে ভালোবাসে। সব কিছুর পর সেই ভালোবাসাটাই কিন্তু কাজ করে। দুটো মানুষ যে যেমনই হোক না কেন শুধুমাত্র ভালোবাসার জোরে একসঙ্গে থাকতে পারে- সেটাই এ ক্ষেত্রে দেখানো হয়েছে।

"গত দশ বছরে বাংলা ছবি সেই ব্যবসা দিতে পারেনি, যা অঞ্জন চৌধুরী দিয়েছিল": প্রসেনজিৎ

একজন শিল্পীর জীবনে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার আগের সব ধরণের স্ট্রাগেলগুলো আমরা দেখতে পাই। কিন্তু একজন শিল্পীর বউ হওয়ার জন্য একটি মানুষকে যে সব স্ট্রাগেলের মধ্যে দিয়ে যেতে হয় তা আমরা দেখতে পাই না। তাদের গল্পটা অজানা থেকে যায়। এটাই কি আপনার এই ছবিতে যুক্ত হওয়ার অন্যতম একটা কারণ ?

এই চরিত্রটাই সেভাবে দাঁড় করানো হয়েছে। ছবিতে একটা সংলাপ আছে, “শিল্পী হতে গেলে ট্যালেন্ট লাগে, শিল্পীর বউ হতে গেলে সাহস” এই কথাটা একদম সত্যি। সত্যিই যারা শিল্পীর বউ হয়, তাদের অনেক সাহস থাকে। কারণ তাদের সারাজীবন অনেক কিছু মেনে চলতে হয়।

আগে বলা হত, মানুষ টেলিভিশনের চরিত্রকে ভুলে যায়। আবার সেই চরিত্রকে মানুষ অন্য কোনভাবে সিনেমায় চরিত্রে জীবন্ত ফিরে পায়। তো আমার একটাই প্রশ্ন, আপনার প্রাপ্ত জীবনে যখন আপনি কেরিয়ার শুরু করেছিলেন তখন বুম্বাদার বোনের চরিত্রে অভিনয় করেছেন। হয়তো আবার বুম্বাদার নায়িকারও চরিত্র করেছেন। তো, প্রাক্তনের পর আজ আবার এত বছর পর বুম্বাদার সঙ্গে এরকম চরিত্রে কাজ করে কেমন লাগছে আপনার? 

আসলে বুম্বাদার সঙ্গে যতবারই কাজ করি ততবারই বুম্বাদাকে নতুন করে পাই। ঈশ্বরের আশীর্বাদে আমার কোনও চরিত্রকে মানুষ ভোলেনি। সে যেকোনও টেলিভিশনের চরিত্র বলুন আর কোনও সিনেমার চরিত্র বলুন, মানুষ আমাকে ভুলে যায় না। সেটা আমার পরম পাওনা এবং গুরুর আশীর্বাদ। আর অবশ্যই বুম্বাদার সঙ্গে কাজ করতে পারলে বা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে কাজ করতে পারলে অনেক শিক্ষা পাওয়া যায়। আর সেই শিক্ষাটাই অনেক বড় ব্যাপার আমার জন্য।

spf19cmo

প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে অপরাজিতা আঢ‍্য। (সৌজন্যে টুইটার)

সেই শেখাটা তো আছেই আর থাকবে। তবে এই কয়েক বছরে বাংলা সিনেমায় নায়কের সঙ্গে নায়িকার চরিত্রের বদলের ব্যাপারটার সঙ্গে আপনি কতটা মুখমুখি হয়েছেন?

এখন তো আর নায়ক নায়িকার জুটি হয়না, হয় শুধু  চরিত্রের জুটি। আবার এই যে চরিত্রের জুটি, এই জুটির কেমিস্ট্রিটা মানুষের মধ্যে এখন অনেক বেশি নাড়া দিয়েছে এবং এটাই থাকবে এখন সেরা জুটি হয়ে।

একটা সময় কিছু সাক্ষাৎকারে বলতে শুনেছি যে, 'কিছু চরিত্রকে মানুষ ব্যাকসিনে রাখে সবসময়। কিন্তু ব্যাকসিনে থেকে গেলে আজ কিন্তু আর মনে হয় না অন্য কোনও সিনে আর কখনও জায়গা পাবো না। আমার মনে হয় সবসময় নায়িকার চরিত্রে অভিনয় করে বোর হয়ে গিয়েছি তাই এবার ব্যাকসিন করি। একবার নতুন অভিজ্ঞতা হবে'। সত্যিই কি তাই?

একদম। এখন ছবিতে অনেক রকম অভিজ্ঞতা হচ্ছে আমাদের। আবার ডিজিটাল মিডিয়া এসে যাওয়ার জন্য ওয়েব সিরিজেও প্রচুর ভালো ভালো কাজ করছে। এখন সময়টা বদলাচ্ছে এবং আশা করি প্রচুর ভাল কাজ হবে।

"অনেকে ‘লড়াই’ বলে বটে, তবে আমার কারও সঙ্গে লড়াই নেই": প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়

আপনি সম্ভবত কয়েকটা গোয়েন্দা সিরিজ করছেন?

হ্যাঁ ঠিকই বলেছেন। আমি মোট তিনটে ওয়েব সিরিজ করেছি।

এত ছোট জায়গা থেকে শুরু করে আজ আপনি তিনটে মিডিয়ামেই কাজ করেছেন। বর্তমান প্রজন্মকে কেমন লাগছে? 

ভালো লাগছে। বেশ ভালো লাগছে। খারাপ লাগছে না।

এই প্রজন্মের ছেলে মেয়েদের কাছেও আপনি বেশ পছন্দের অভিনেত্রী। আমরা আপনাকে চিনে এসেছি আমাদের বাবা মায়েদের চোখ দিয়ে। তো সেখান থেকে আমরা মনে করি আগামি দিনে আপনি আমাদের আরও অনেক কিছু এবং অনেক ভালো মুহূর্ত উপহার দেবেন। তবে এই কিশোর কুমার জুনিয়র ছবিটা কী মানুষ প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়, অপারাজিতা আঢ‍্য বা কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের জন্য দেখতে যাবে নাকি কিশোর কুমারের জন্য?

 অবশ্যই কিশোর কুমারের জন্য দেখতে যাবেন। কারণ কিশোর কুমারের গানের সঙ্গে আমাদের বেড়ে ওঠা- যেটার সঙ্গে অনেক ভালো খারাপ থাকার মুহূর্ত জড়িয়ে আছে। সেই কিশোর কুমারের গান ও কৌশিক গাঙ্গুলির পরিচালনায় এবং প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের অভিনীত ছবি-এর থেকে বড় কিছু পাওনা আর হতে পারেনা।

অসংখ্য ধন্যবাদ। কিশোর কুমার জুনিয়রের জন্য অনেক শুভকামনা।

ধন্যবাদ।


বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
Advertisement
Advertisement