Advertisement
হোমবলিউড

"তৈমুরকে ডাকলে বুঝতে পারে, কিন্তু ক্যামেরা বোঝে না", জানালেন মা করিনা

করিনা জানান, “ওর নাম ধরে ডাকা হলে ও বুঝতে পারে কিন্তু ক্যামেরায় ওর ছবি তোলা হচ্ছে কিনা সেটা বোঝার পক্ষে ও এখনও অনেকটাই ছোট বলে আমার মনে হয়। “    

  | June 14, 2018 13:01 IST (নিউ দিল্লী)
Taimur

মুম্বাইতে করিনার সঙ্গে ছোট্ট তৈমুর

Highlights

  • "নাম ধরে ডাক্লে তৈমুর এখন বুঝতে পারে", জানালেন করিনা
  • "ক্যমেরা বোঝে না", তিনি আরও জানান
  • "ও এখনও অনেক ছোট", বললেন করিনা
করিনা কাপুর একবার বলেছিলেন, তৈমুরের জনপ্রিয়তা অক্ষয় কুমারের রেপুটেশনের থেকে বেশি। তৈমুর প্রায়ই তাঁর অভিনেত্রী মায়ের সঙ্গে কর্মক্ষেত্রে যায়, মুম্বাইতে একটা প্লে-স্কুলেও সে সম্প্রতি যাওয়া শুরু করেছে। তৈমুর যেখানেই যাক না কেন, পাপারাজ্জি সব সময় তার আশপাশে থাকে। ঠাকুমার বাড়ি হোক বা কাজিন ইনায়ার সঙ্গে দেখা করতে যাওয়া হোক, পাপারাজ্জি সব সময় তৈমুরের ওপর নজর রাখে। স্টার-কিড তৈমুরের আশপাশে সর্বক্ষণ পাপারাজ্জির ঘোরাফেরা তৈমুর কীভাবে নেয়, প্রশ্নের উত্তরে হিন্দুস্তান টাইমস-কে করিনা জানান, “ওর নাম ধরে ডাকা হলে ও বুঝতে পারে কিন্তু ক্যামেরায় ওর ছবি তোলা হচ্ছে কিনা সেটা বোঝার পক্ষে ও এখনও অনেকটাই ছোট বলে আমার মনে হয়। “    
 
taimur ndtv

সইফ এবং করিনার সঙ্গে মুম্বাইতে তৈমুর

সম্প্রতি ইন্টারনেটে ভাইরাল হওয়া একটা ভিডিওতে দেখা গেছে, পাপারাজ্জি তৈমুরের নাম ধরে ডাকায় তৈমুর ন্যানির কোল থেকে মাথা ঘুরিয়ে দেখছে। তখনই ন্যানি পাপারাজ্জির কার্যকলাপে বিরক্ত হয়ে তাকে নিয়ে সোজা গাড়ির ভিতরে ঢুকে যাচ্ছে।
 
 

#New Taimur looks cute as always. @kareena.kapoor.official #taimuralikhan

A post shared by Taimur Ali Khan (@taimurteam) on


পাপারাজ্জি ইন্টারনেটে তৈমুরের জনপ্রিয়তা অত্যন্ত বাড়িয়ে দিয়েছে, যা নিয়ে করিনা প্রাথমিকভাবে অসন্তোষ প্রকাশ না করলেও তিনি বলেছেন, “সত্যি বলতে আমি কোনদিন ওকে এসবের থেকে দূরে সরিয়ে রাখিনি। ও সব জায়গাতেই আছে। কিন্তু ওর বয়স মাত্র 17 মাস। সুতরাং ওকে বড় হয়ে নিজের মতো জীবন কাটাতে দেওয়া উচিত। আমি চাই ও সাধারণ ভাবেই বড় হয়ে উঠুক আর এটাও বুঝি বর্তমান পরিস্থিতিতে সেটা কতটা কঠিন কিন্তু সেটাও ঠিকই আছে। আমি ওকে ওর মতোই থাকতে দিই। আমি ওকে কোনও কিছুর থেকেই আটকাবো না, ওকে সাধারণ জীবন যাপন করতে দেব।“
 

তৈমুরের জন্মের কয়েক সপ্তাহ পর থেকেই করিনাকে নিয়মিত জিমে দেখা যেত। তিনি দিনে দশ ঘন্টা ওয়ার্কআউট করতেন বলে জানা গেছে। তারপরেই তিনি ভিরে দি ওয়েডিং এর শুটিং-এ যোগ দেন। মায়ের দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন না করায় প্রায়ই করিনাকে ট্রোল হতে হয়েছে কিন্তু ট্রোলের যোগ্য জবাব দিয়ে করিনা জানান, “আমার ছেলে আমারই, সোশ্যাল মিডিয়ায় নেই বা কেউ জানতে পারছে না বলে আমাকে সব জানাতে হবে তা নয়।“
 
taimur ndtv

মুম্বাইতে করিনার সঙ্গে তৈমুর

তবে আমরা জানিনা, করিনা যখন বলেন ছেলের সঙ্গে বেশী সময় কাটাবার জন্য তিনি বছরে একটামাত্র সিনেমা করবেন জানিয়েছেন তখন ট্রোলাররা কী বলেছে। “আমি আগের মতো সিনেমায় সময় দিতে আর পারবো না। তাই আমি চাইবো এমন কিছু সিনেমা যার কাজ 50 দিনের মধ্যে শেষ করা যাবে। সুতরাং বছরে দুটো বা তিনটে সিনেমার বদলে আমি একটা করে সিনেমা করবো”, আগে একটা সাক্ষাৎকারে আইএএনএস-কে করিনা জানিয়েছিলেন।   
                                 
করিনা কাপুর এবং সইফ আলি খানের সন্তান তৈমুর এই বছর ডিসেম্বরে তার দুই বছরের জন্মদিন পালন করবে। শেষবার ভিরে দি ওয়েডিং সিনেমায় করিনাকে অভিনয় করতে দেখা গেছে যা ইতিমধ্যে প্রায় 73 কোটি টাকার বেশি আয় করেছে।
 
Advertisement
Advertisement