হোমরিভিউস

রিভিউঃ অভিনয়েই বাজিমাত করল সঞ্চিরিয়া

  | March 01, 2019 18:04 IST
Sonchiriya

সঞ্চিরিয়া রিভিউঃ ছবির একটা দৃশ্যে সুশান্ত, ভূমি ও মনোজ বাজপেয়ী। (সৌজন্যে: Instagram)

নিজের অভিনয় দক্ষতা আরও একবার সকলকে চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছেন বাজপেয়ী। অন্যদিকে রানা, শোরে, রাজপুত প্রত্যেকেই তুখোড়। পুরুষ অভিনেতাদের মাঝে দম নেওয়ার সুযোগ কম থাকলেও এক চুল জমিও ছাড়েননি ভূমি পেডনেকর।

কাস্ট: সুশান্ত সিং রাজপুত, ভুমি পেডনেকর, মনোজ বাজপেয়ী, আশুতোষ রানা 

পরিচালক: অভিষেক চৌবে

রেটিং: ৩.৫/৫


সুদীপ শর্মার চিত্রনাট্য এবং অনুজ রাকেশ ধাওয়ানের ক্যামেরা, মেঘনা সেনের এডিটিং, বেনেডিক্ট টেলর ও নরেন চন্দভারকারের আবহে পরিচালক ও সহ-গল্পকার অভিষেক চৌবে সঞ্চিরিয়াতে ১৯৭০-এর দশকের চম্বলের ডাকতিকে কেন্দ্র করে যুদ্ধ ও তার ভয়াবহতাকে এক দুর্ধর্ষ সিনেম্যাটিক রূপ দিয়েছেন। ছবিতে গল্প বলার ভঙ্গির মধ্যে দিয়ে জাত-ধর্ম-লিঙ্গপরিচয়-অপরাধ সমস্ত কিছুতেই এমন সুন্দর ভাবে ওই সময়কালকে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে যা দেখে দর্শক মাইথলজির সঙ্গে মিল খুঁজে পাবে। 


nij2m32g

সঞ্চিরিয়া ছবির একটি দৃশ্য। (সৌজন্যে ইউটিউব)

চৌবে নির্বাচিত অভিনেতারা- পরিচিত মুখ (মনোজ বাজপেয়ী, সুশান্ত সিং রাজপুত, ভূমি পেডনেকর, আশুতোষ রানা, রণভীর শোরে) এবং অপরিচিত মুখেরা (যতীন শর্মা, হরিশ খান্না, সঞ্জয় শ্রী বাস্তব ও সকল থিয়েটার অভিনেতা) প্রত্যেকেই চিত্রনাট্যের সঙ্গে এমনভাবে মিশে গিয়েছেন যেন মনে হয়েছে তাঁরা সকলেই ক্যামেরা-চিত্রনাট্য সমস্ত কিছু দূরে সরিয়ে রেখে বাস্তবেই অভিনয় ছেড়ে যুদ্ধক্ষেত্রে নেমে এসেছেন। 

নিজের অভিনয় দক্ষতা আরও একবার সকলকে চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছেন বাজপেয়ী। অন্যদিকে রানা, শোরে, রাজপুত প্রত্যেকেই তুখোড়। পুরুষ অভিনেতাদের মাঝে দম নেওয়ার সুযোগ কম থাকলেও এক চুল জমিও ছাড়েননি ভূমি পেডনেকর।

ছবিতে বর্ণিত ডাকাত দলের আসল লড়াইটা সমাজের বিরুদ্ধে, যে সমাজে তারা প্রত্যেকেই বঞ্চিত। পরিস্থিতির চাপে তারা প্রত্যেকেই স্বাভাবিক থাকতে চেয়েও পারেনি- ফলস্বরূপ প্রতিশোধ স্পৃহা জেগে উঠেছে প্রত্যেকের মধ্যে। 

আরও পড়ুনঃ Luka Chuppi Review: যুক্তির সঙ্গে ‘লুকা ছুপি' খেললেন কার্তিক-কৃতী

মা ভবানীর সাধক এই ঠাকুর দলের প্রধান মান সিং (অভিনয়ে মনোজ বাজপেয়ী) যিনি ঘটনাচক্রে এমন পরিস্থিতির মুখোমুখি যেখানে তার দলের অনেক সদস্যই তার বিরুদ্ধে চলে যাচ্ছে। একদিকে তার ডান হাত লক্ষণ সিং (সুশান্ত সিং রাজপুত) তাকে আসন্ন বিপদ সম্পর্কে সচেতন করছে অন্যদিকে তার বাম হাত ভাকিল সিং (রণভীর শোরে) অন্ধের মতো তাকে অনুসরণ করছে। 

ছবিতে তৎকালীন সামাজিক পরিস্থিতির পাশাপাশি রাজনৈতিক পরিস্থিতির ছবিও ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। সে সঙ্গে সংবাদ মাধ্যমের ভুমিকাতেও প্রশ্ন তোলা হয়েছে।

অকথ্য অত্যাচার করা হয়েছে এমন এক বছর ১২-এর দলিত মেয়ের নাম অনুসারে ছবির নামকরণ করা হয়েছে। পরবর্তীকালে লক্ষণ, ইন্দুমতি তোমার (ভূমি পেডনেকর) সহ আরও অনেকেরই সঞ্চিরিয়ার সুবিচার আদায় করা একমাত্র লক্ষ্য হয়ে ওঠে।

ছবির সমস্ত চরিত্র বুন্দেলখন্ডি ভাষায় কথা বলে। ফলত দর্শকদের বোঝার সুবিধার্থে সাবটাইটেল জরুরি হয়ে পড়ে। গুলির আওয়াজ থেকে শুরু করে ছবির সমস্ত অংশ জুড়েই আবহ সংগীতের ব্যবহার মুগ্ধ করেছে। বিশাল ভরদ্বাজের সুরে ও বরুণ গ্রোভারের কথায় রেখা ভরদ্বাজ, সুখিন্দর সিং ও অরিজিৎ সিং-এর গান যথেষ্ট প্রশংসার দাবি রাখে। ক্যামেরা, আলোর ব্যবহার, চিত্রনাট্য, আবহ, পরিচালনা ও অভিনয় সব মিলিয়ে সঞ্চিরিয়া দর্শকদের মন জয় করতে পারবে বলেই মনে হয়।




বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
Advertisement
Advertisement