হোমটলিউড

মায়া মধুর না ভয়ের? খোঁজে বেরোচ্ছেন ইন্দ্রাশিস

  | December 22, 2019 12:48 IST (কলকাতা)
Maya Bhoy

ফেলুদা এবার মামা-র ভূমিকায়

অস্থির সময়ে তাহলে কি মায়া ভয়? অবচেতনে তৈরি হওয়ায় এমন অনেক অনুভূতি---যা মুখে বলা যায় না তার একটি আগামী ফেব্রুয়ারি থেকে ক্যামেরাবন্দি করতে চলেছেন পরিচালক ইন্দ্রাশিস আচার্য।

মায়া-মমতায় ভয় পাচ্ছে জেন জেড? অনেক মনস্তাত্ত্বিকের মতে, কমিটমেন্ট ফোভিয়ায় ভুগছে আগামী প্রজন্ম। দূরে পালাতে চাইছে গড়ে ওঠা সম্পর্ক থেকে। জড়াতেও চাইছে না কারোর সঙ্গে। অস্থির সময়ে তাহলে কি মায়া ভয়? অবচেতনে তৈরি হওয়ায় এমন অনেক অনুভূতি---যা মুখে বলা যায় না তার একটিকে আগামী ফেব্রুয়ারি থেকে ক্যামেরাবন্দি করতে চলেছেন পরিচালক Indrasis Acharya। এবং এই প্রথম নিজের নয়, সাহিত্যিনির্ভর ছবি বানাচ্ছেন তিনি। সঞ্জীব চট্টোপাধ্যায়ের গল্প ‘ভয়‘ ইন্দ্রাশিসের আগামী ছবি ‘Maya Bhoy‘-এর পটভূমিকা। ‘পার্সেল‘ যেমন দেখিয়েছিল এক চিকিৎসক দম্পতির যাপিত জীবন, এই গল্প বলবে এক নারীর সঙ্গে ঘটে চলা একের পর এক অঘটন কীভাবে তাকে অস্তিত্ব সংকটের মুখোমুখি দাঁড় করায়। মনের কোণে জন্ম দেয় ভালোবাসা-মায়া-মমতার প্রতি ভয়ের। 


hc3qckio


ছবির কেন্দ্রীয় চরিত্র দীপা ছোট থেকেই পৈশাচিক প্রবৃত্তির শিকার। মা-বাবা থাকতেও নাবালিকার সঙ্গে যা যা খারাপ ঘটনা ঘটতে পারে সব কটাই ঘটেছে তার সঙ্গে। এভাবে বড় হতে হতে আচমকাই মা-হারা হয় সে। ডাক্তারমামা তখন তাকে নিয়ে আসেন নিজের কাছে। মামাবাড়িতে এসে হাতে স্বর্গ পায় যেন সে। কিন্তু শুধু খারাপের মধ্যে বেড়ে ওঠে যার ছেলেবেলা সে তো অতি ভালোকেও ভয় পায়! তেমনই অবস্থা দীপার। মামা-মামীর ভালবাসা, রঙ্গনের বন্ধুত্ব যেন তার পায়ের শিকল হয়ে দাঁড়ায়। কারণ, মানুষের ওপর থেকে যে বিশ্বাস উঠে গেছে তার। এদিকে মামার মধ্যেও অতি ভালো মানুষীর আড়ালে লুকিয়ে এক অন্য মানুষ। যদিও তাঁর শিক্ষা-রুচি সেই মানসিকতাকে ছাপিয়ে উঠতে দেয় না। দীপা কি এভাবেই সারাজীবন দূরে সরে থাকবে মায়ার বাঁধন থেকে? তারই মনের আয়না ইন্দ্রাশিসের আগামী ছবি।



4de1gpi


ছবিতে দীপার চরিত্রে অভিনয় করছেন অনুরাধা মুখোপাধ্যায়। ডাক্তার মামা টোটা রায়চৌধুরী। ফেলুদার পাশাপাশি তাঁর আরও একটি ভিন্ন রূপ ভালো লাগবে দর্শকদের। আশা পরিচালকের। মামী অপরাজিতা ঘোষ দাস। টোটার জুনিয়র রাহুল বন্দ্যোপাধ্যায়। এই ছবির সুরের দায়িত্ব জয় সরকারের। এখনও কণ্ঠশিল্পীর কথা চিন্তাভাবনা হয়নি। প্রয়োজনে গান নাও থাকতে পারে বলে জানিয়েছেন পরিচালক। ইন্দ্রাশিস উবাচ, 'আমার ছবিতে গান তুলনায় কমই থাকে। কারণ, যে গল্প, যেকথা মানুষ বলতে পারে না, বোঝাতে পারে না---আমি তাকেই পর্দায় তুলে ধরার চেষ্টা করি। সেখানে গানের ভূমিকা তুলনায় গৌণ।' জেনিথ প্রোডাকশন হাউজের প্রযোজনায় ছবির শুট হবে দার্জিলিং সহ উত্তরবঙ্গের একাধিক শৈল শহরে। কারণ, গল্পের পটভূমিকায় রয়েছে পাহাড়ি অঞ্চল। এই ছবিও কি অন্যগুলোর মতো আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে অংশ নেবে? প্রশ্ন রাখতেই পরিচালকের হাসিমাখা জবাব, চেষ্টা তো থাকবেই। দেখা যাক, কী হয়।


বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
Advertisement
Advertisement
Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com