হোমটিভি

জামাই এল ঘরে.....কী হল তারপরে?

  | June 28, 2019 15:25 IST
Zee Bangla Original

জামাই এল ঘরে

ভাবছেন, দিন বদলাবে, যুগ এগোবে, আর মান্ধাতার রীতি বদলাবে না! সেই বদল আসাতেই তো দিব্যকান্তির সংসারে যত ঝামেলা। ঢাকঢোল পিটিয়ে, ঘটা করে একমাত্র মেয়ের বিয়ে দিয়েছেন। বিয়ের কাজকম্মো সব মিটতেই তাঁর শখ, অনেকদিন ছুটি নিয়ে জীবন উপভোগ করেননি। আজীবন অফিসের গম্ভীর বস হয়েই কাটিয়ে দিলেন জীবনের বেশির ভাগ।

যতই যুগ আধুনিক হোক, যতই লিভ ইন চালু হোক সমাজে---তবু বিয়ের পর বউমাই আসে ঘরে। স্বামীর সংসার গুছোতে। ধরুন, যুগের চাহিদা মেনে যদি উল্টোটা হয়! মানে, বউমার বদলে যদি জামাই আসে ঘরে? ভাবছেন, দিন বদলাবে, যুগ এগোবে, আর মান্ধাতার রীতি বদলাবে না! সেই বদল আসাতেই তো দিব্যকান্তির সংসারে যত ঝামেলা। ঢাকঢোল পিটিয়ে, ঘটা করে একমাত্র মেয়ের বিয়ে দিয়েছেন। বিয়ের কাজকম্মো সব মিটতেই তাঁর শখ, অনেকদিন ছুটি নিয়ে জীবন উপভোগ করেননি। আজীবন অফিসের গম্ভীর বস হয়েই কাটিয়ে দিলেন জীবনের বেশির ভাগ। এবার তিনি সকালে উঠে বারান্দায় বসে পাখির ডাক শুনতে শুনতে চা খাবেন। গান শুনবেন। বই পড়বেন। ভালোমন্দ বাজার করে আনবেন। শরীর খারাপের ভয়ে যা যা খেতেন না কবজি ডুবিয়ে তাই-ই খাবেন। এই সব ভেবে ছুটিও নিয়ে ফেললেন। কিন্তু সব ম্যাসাকার করল জামাই পলাশ। গোদের ওপর বিষফোঁড়ার মতো জামাই এল ঘরে। দখল নিল দিব্যকান্তির পাজামা, পাঞ্জাবি, সাধের দোলনা এমনকি হাওয়াই চটির! জামাই জ্বালায় জ্বলতে জ্বলতে কী করলেন দিব্যকান্তি? জামাইকে বের করে দিলেন? নাকি, মানিয়ে নিয়ে জামাইকে করে নিলেন ঘরের ছেলে? উত্তর দেবে জি বাংলার অরিজিনাল ( Zee Bangla) 'জামাই এল ঘরে' (Jamai Elo Ghore)। আগামীকাল শনিবার, সন্ধে সাতটায়।

 ভালোবাসার আলো জ্বালাতে আসছে সাঁঝের বাতি

সাহিত্যিক-সাংবাদিক প্রচেত গুপ্তের গল্প 'গৃহত্যাগী' থেকে জি বাংলার জন্য এই ছবি বানিয়েছেন সুদেষ্ণা রায়-অভিজিত গুহ। এই ছবিতে তাঁরা পলাশের মা-বাবাও। কথায় কথায় সুদেষ্ণা জানালেন, প্রচেত গুপ্তের গল্পটা পড়ে মনে হল এটা নিয়ে ছবি করলে দর্শকদের ভালো লাগবে। কারণ, একদিকে বিষয়টি যেমন সমসাময়িক। বউমার বদলে জামাই শ্বশুরঘর করতে এলে কী হবে ঘরে ঘরে--- তাই নিয়ে গল্প, তেমনি মন খুলে হাসার অনেক অপকরণ রয়েছে এতে। ছবিতে আমি পলাশের মা। তা বলে টিপিক্যাল শাশুড়ি নই। যে সারাক্ষণ বউমার পেছনে লাগছে। বরং ছেলের থেকে বউমা বেশি প্রিয়। আর এতদিন শাশুড়ি-বউমার দ্বন্দ্ব দেখেছেন সবাই। এবার  দেখুন শ্বশুর-জামাইয়ের খটাখটি। আশা করি ভালো লাগবে।

ifh6dggo


ছবি নিয়ে বলতে গিয়ে উচ্ছ্বসিত ছবির আরেক পরিচালক এবং অনস্ক্রিন পলাশের বাবা অভিজিত গুহ-ও। তাঁর মতে, আমাদের কাছে ছেলে হাড়জ্বালানে। বউমা নয়। ফলে, বউমা ঘরের মেয়ে। আর ছেলে যেন গেলেই বাঁচি। কারণ, এত নিয়ম মেনে চলা ছেলে এক একসময় যেন দম বন্ধ করে দেয় মা-বাবার। তাই পলাশ শ্বশুরবাড়ি গেলে আমরা দিব্যকান্তিকে বলি, থাকুক না আপনাদের কাছে। আরেক সপ্তাহ। কারণ, বউমা যে মেয়ের মতোই আমাদের সাজায়-গোছায়, বেড়াতে নিয়ে যায়। 

Aditya Pancholi Rape Case: মিথ্যে মামলায় ফাঁসানো হয়েছিল অভিনেতাকে, সত্যি?

ছবিতে দিব্যকান্তির চরিত্রে অভিনয় করেছেন সব্যসাচী চক্রবর্তী। প্রথমে জাঁদরেল অফিসার হলেও পরে তিনিই জমিয়ে দেবেন। তাঁর অনস্ক্রিন স্ত্রী তুলিকা বসু। মেয়ে অফস্ক্রিন বউমা ঋদ্ধিমা ঘোষ। জামাই পলাশ সমদর্শী দত্ত। পরিচালকেরা জানিয়েছেন, শ্বশুরমশাইদের কাছে বউমা যে সত্যিই মেয়ের মতো সব্যসাচী-ঋদ্ধিমার অভিনয়ে সেই ঝলকই দেখা যাবে। পলাশের চরিত্রে অভিনয় করে খুশি সমদর্শী উবাচ, এই প্রথম দেখলাম বউ বেশি আপন ছেলের থেকে। যার ফলে, শেষে কিনা ছেলে গৃহত্যাগী! বাস্তবেও ব্যাপারটা ঘটলে মন্দ হবে না। ছবির চিত্রনাট্য লিখেছেন পদ্মনাভ দাশগুপ্ত। 


বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
Advertisement
Advertisement