হোমটিভি

'মাথার ওপরের ছাদটাই রইল না', হাহাকার কনীনিকা, অনসূয়া, লীনার

  | March 12, 2020 19:32 IST (কলকাতা)
Santu Mukherjee

লীনা গঙ্গোপাধ্যায়ের অন্দরমহল ধারাবাহিকে কনীনিকা-অনুসূয়ার সঙ্গে

জন্মভূমি ধারাবাহিকের ‘রতিকান্ত’র অভিনয়ের পাশপাশি হিট হয়েছিল তাঁর ডিজাইনার পাঞ্জাবি।

বড়পর্দার মতোই নয়ের দশক থেকে ছোটপর্দাতেও সমান জনপ্রিয় ছিলেন সন্তু মুখোপাধ্যায় (Santu Mukherjee)। জন্মভূমি ধারাবাহিকের ‘রতিকান্ত'র অভিনয়ের পাশপাশি হিট হয়েছিল তাঁর ডিজাইনার পাঞ্জাবি। তাঁর সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতা, ফেলে আসা দিনের স্মৃতিতে ডুব দিলেন অভিনেত্রী অনসূয়া মজুমদার (Anashuya Majumdar), কনীনিকা বন্দ্যোপাধ্যায় ( Kaneenica Banerjee) এবং পরিচালক লীনা গঙ্গোপাধ্যায় (Leena Ganguly)---

'আবার পিতৃহারা': কনীনিকা বন্দ্যোপাধ্যায় (অভিনেত্রী)

কথায় কথায় স্মৃতিতর্পণ কনীনিকা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। জানালেন, সন্তুকাকুর সঙ্গে সম্পর্ক কি আজকের! শুরু সুপারহিট মেগা জন্মভূমি থেকে। ছোটপর্দায় তাঁর সঙ্গে শেষ কাজ অন্দরমহল। আমার শ্বশুরমশাই হয়েছিলেন সেই মেগাতে। প্রথমে ভীষণ কড়া। নিজের ভুল বুঝতে পারার পর বউমা অন্তপ্রাণ। নতুনদের ভীষণ সহজে আপন করে নিতে পারতেন। আজকের দিনে কেউ হাতে ধরে কাউকে অভিনয় শেখায় না। সন্তুকাকু কিন্তু শটের পর আমাদের ডেকে কীভাবে সংলাপ বলতে হয়, বোঝাতেন। এর থেকেই বোঝা যায়, মানুষটা কী অসম্ভব ভালোবাসতেন অভিনয় করতে।

ওঁর সঙ্গে কোনও শটে আমার তাই অভিনয় করতে হয়নি। আপনা থেকেই বেরিয়ে আসত দৃশ্যগুলো। যা পরে প্রসংশা পেয়েছে দর্শকদের। বয়সের জন্য এবং শ্বশুরমশাই চরিত্রে অভিনয়ের খাতিরে সন্তু মুখোপাধ্যায় আমার পিতৃতুল্য। জানতামও না, এত বড় রোগে ভুগছেন। আজনতুন করে যেন পিতৃহারা হলাম।


কে আমার উচ্চারণ শুধরে দেবে!: অনসূয়া মজুমদার (অভিনেত্রী)

ফোনে গলা ধরে আসছিল অনসূয়া মজুমদারেরও। জলনূপুর, কোজাগরী, অন্দরমহল, কুসুমদোলা, ইষ্টিকুটুম এবং শেষ কাজ করলেন মোহর-এ। সন্তু মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে। শেষের দিকে খুব রোগা হয়ে গেছিলেন। সেটে দেখে জিজ্ঞেস করেছিলাম, খুব রোগা হয়ে গেছেন দাদা! বলেছিলেন, হ্যাঁ, ইদানিং খাওয়া কমিয়ে দিয়েছি। তবু মুখ ফুটে বলেননি, ওঁর ক্যান্সার হয়েছে। মোহর ধারাবাহিকে জানুয়ারি পর্যন্ত কাজের পর পরিচালক লীনা গঙ্গোপাধ্যায়কে জানান, তিনি আর পারছেন না। তখন জানতে পারি, দাদা অসুস্থ। শুধু কি হাতে ধরে অভিনয় শেখানো? উচ্চারণ পর্যন্ত শুধরে দিতেন। কোনও অসুবিধে হলেই ওঁর কাছে যেতাম। ভীষণ ভালো, ভদ্র, শান্ত মানুষ। ধীরেসুস্থে দেখিয়ে দিতেন, কোনটা করলে বেশি ভালো হবে। অনেক ধারাবাহিকে আমরা স্বামী-স্ত্রী। কুসুমদোলা-তে উনি আমার দেওর হয়েছিলেন। গোত্র ছবিতে মাসিমার আইকনিক বয়ফ্রেন্ড! দেখতে যাব করেও আর যাওয়া হয়ে ওঠেনি। এভাবে আচমকা ছুটি নেবেন কে জানত!

আমার ছবি, ধারাবাহিকেই শেষ কাজ: লীনা গঙ্গোপাধ্যায় (পরিচালক, চিত্রনাট্যকার) 

বোলপুরে শুটিংয়ে ব্যস্ত পরিচালক-চিত্রনাট্যকার লীনা গঙ্গোপাধ্যায়। তাঁর ছবি সাঁঝবাতি এবং মেগা মোহর সন্তু মুখোপাধ্যায়ের শেষ কাজ। ফোনে লীনার খেদ, এত বছর ধরে অভিনয় করেছেন। আমার প্রচুর মেগায় কাজ করেছেন। উত্তমকুমারের পর সন্তুদাই একমাত্র অভিনেতা যিনি সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে ফ্রেম শেয়ার করেছেন। তাঁর সময়ের সমস্ত নায়িকাদের নায়ক হয়েছেন। আমার প্রত তারপরেও তাঁর খিদে ছিল অভিনয়ের। বারবার বলতেন, লীনা এমন একটা চরিত্র দিবি, যেটা করে মন ভরে যাবে। যেটা আগে কখনও করিনি। তেমনই চরিত্র ছিল মোহর ধারাবাহিকে। খুব খুশি হয়েছিলেন চরিত্রটি পেয়ে। কিন্তু জানুয়ারি মাসের পরে আর করতে পারলেন না। বললেন, এবার ছুটি দে আমায়। প্রথমে অসুস্থতা নিয়েই কাজ করেছেন। বলতেন, আমায় তাড়াতাড়ি ছুটি করে দিবি! তাহলে বাড়িতে গিয়ে বিশ্রাম নিয়ে খাওয়াদায়া করব। ছেড়ে দিয়েছি দাদাকে। আর আজ উনিই আমায় ছেড়ে চলে গেলেন!






বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
Advertisement
Advertisement
Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com