হোমআঞ্চলিক

“ঘরে বাইরে আজ” আমার কেরিয়ারের সবচেয়ে বড় রাজনৈতিক সিনেমা: অপর্ণা সেন

  | July 19, 2019 19:28 IST (কলকাতা)
Aparna Sen

"ঘরে বাইরে আজ" নামে নতুন সিনেমা বানাচ্ছেন অপর্ণা সেন

"এটা আমার তৈরি সবচেয়ে রাজনৈতিক ছবি। এটা সবচেয়ে সৎ এবং স্পষ্টভাষী চলচ্চিত্র। আমার মতে, একটি শক্তিশালী বিরুদ্ধ মত থাকা গুরুত্বপূর্ণ। যদি প্রকৃত রাজনৈতিক বিরোধীরা একসঙ্গে না হতে পারে, তাহলে আমি মনে করি নাগরিকদের মধ্যে একটি বিরোধী মত গড়ে তোলা জরুরি কারণ এটিই একমাত্র উপায় যা স্বাস্থ্যকর গণতন্ত্র গড়ে তুলতে পারে" নিজের ছবি "ঘরে বাইরে আজ" প্রসঙ্গে বলেন অপর্ণা সেন।

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের উপন্যাস “ঘরে বাইরে” অবলম্বনে নতুন সিনেমা “ঘরে বাইরে আজ” (Ghawre Baire Aaj) বানাচ্ছেন অপর্ণা সেন (Aparna Sen), এই সিনেমাটি আজ পর্যন্ত তার সবচেয়ে "রাজনৈতিক এবং স্পষ্টভাষী" চলচ্চিত্র বলে দাবি করেছেন পরিচালক। “৩৬ চৌরঙ্গি লেন”, “মিস্টার অ্যান্ড মিসেস আইয়ার”,“দ্য জাপানিজ ওয়াইফ”  এবং “ইতি মৃণালিনী”র মতো সিনেমার নির্মাতা চাইছেন এই ছবির (Bengali film) মাধ্যমে ছবির দর্শকদের বিবেককে জাগ্রত হোক। একই উপন্যাস অবলম্বনে ১৯৮৪ সালেও চলচ্চিত্র তৈরি করেন সত্যজিৎ রায়। অপর্ণা সেনের এই  সিনেমাতেও (Aparna Sen's new film) মুখ্য ৩টি চরিত্র আছে, যার মধ্যে একটির সঙ্গে যথেষ্ট মিল পাওয়া যায় নিহত সাংবাদিক গৌরী লঙ্কেশের। "নিখিলেশের চরিত্র বাদে আর কোনও চরিত্রের সঙ্গে বাস্তবের কোনও মিল নেই। কিন্তু নিখিলেশের চরিত্রটি অনেকটাই যেন সাংবাদিক গৌরী লঙ্কেশের উপর ভিত্তি করে অদ্ভুত ও নিরপেক্ষভাবে নির্মাণ করা হয়েছে। এর আগে গোবিন্দ পানেসার এবং এমএম কালবুর্গির মতো আরও অনেককে হত্যা করা হয়েছে। যে কেউই মধ্যপন্থী হওয়ার চেষ্টা করেছে তাঁদেরই কেউ বা কারা মুখ বন্ধ করে দিয়েছে”, বলেন অপর্ণা।

‘সৌমিত্র চ্যটার্জীর সঙ্গে কাজ করতে চিরদিনই ভালোবাসি', বললেন অপর্ণা সেন

"এটা যে সবসময় হিন্দুত্ববাদী কণ্ঠস্বর হবে তা নয়, এটি ইসলামী মৌলবাদীও কণ্ঠস্বরও হতে পারে। যে কোন ধরনের যুক্তি ও মধ্যপন্থী কণ্ঠকেই নীরব করে দেওয়ার চেষ্টা চলছে। এটা অত্যন্ত উদ্বেগের এবং সুস্থ গণতন্ত্রের প্রতি আগ্রহী যেকোনও মানুষেরই এই পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়া উচিত", জাগরণ চলচ্চিত্র উৎসবের একটি আলোচনা সভায় চলচ্চিত্র সমালোচক রাজীব মাসন্দকে একথা বলেন তিনি।

নিজের তৈরি এই নতুন চলচ্চিত্র সম্বন্ধে অপর্ণা বলেন, এই ছবিতে তিনি ডান ও বাম উভযপক্ষের যুক্তিই উপস্থাপন করার চেষ্টা করেছেন। "আমি যুক্তিবাদী দুই পক্ষকে - ডানপন্থী ও বামপন্থী দুই পক্ষকেই রাখার চেষ্টা করেছি। আমি একপেশে ভাবে কিছু দেখাইনি। আমি আশা করছি এই ছবিটি একটি সুস্থ বিতর্কের জন্ম দেবে। একটি তীক্ষ্ণ, যুক্তিসঙ্গত বিতর্ক। আমি আশা করি এই চলচ্চিত্রটি একটি সুষ্ঠু বিতর্ক তৈরি করবে"।


এতদিন শুধুই দিলাম, এবার নেবও: খোলামেলা আড্ডায় কাঞ্চন মল্লিক

তিনি আরও বলেন, সুস্থ গণতন্ত্রের জন্য সরকারের দৃঢ় বিরোধিতা করা জরুরি। "এটা আমার তৈরি সবচেয়ে রাজনৈতিক ছবি। এটা সবচেয়ে সৎ এবং স্পষ্টভাষী চলচ্চিত্র। আমার মতে, একটি শক্তিশালী বিরুদ্ধ মত থাকা গুরুত্বপূর্ণ। যদি প্রকৃত রাজনৈতিক বিরোধীরা একসঙ্গে না হতে পারে, তাহলে আমি মনে করি নাগরিকদের মধ্যে একটি বিরোধী মত গড়ে তোলা জরুরি কারণ এটিই একমাত্র উপায় যা স্বাস্থ্যকর গণতন্ত্র গড়ে তুলতে পারে" বলেন অপর্ণা সেন।


(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)


বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
Advertisement
Advertisement