হোমআঞ্চলিক

অসুখের আজ নাম নেই কিন্তু বিক্রেতা আছে!

  | September 04, 2018 00:25 IST (কলকাতা)
Palash Dey

একেবারেই আলাদা চরিত্রে এই ছবিতে দেখা যাবে সায়ন ঘোষ আর স্নেহা চট্টোপাধ্যায়কে।

প্যারাসিটামল, গ্যাস-অম্বল-হজমের ওষুধ আজ যখন মানুষের জীবনের ছায়াসঙ্গী, অসুখওয়ালা দেখাবে এক নতুন আশার আলো!

আজকাল মানুষ প্যারাসিটামল, গ্যাস-অম্বল-হজমের ওষুধ খায় মুড়ি মুড়কির মতো। বিশেষত মফঃস্বলের দিকে দেখা যায় মানুষ অসুখ হলে ডাক্তারের কাছে না গিয়ে ওষুধের দোকানে গিয়ে বলে, 'দাদা অমুক ওষুধটা দিন তো!' আর তারপর রোগ বাড়লে দেখা যায় সব দোষ গিয়ে পরে ওষুধ বিক্রেতার ওপর। দোকানিকে তারপর সহ্য করতে হয় লাঞ্ছনা-গঞ্জনা। অথচ নিজের গাফিলতি ঠিক কোন জায়গাটায় তা খুঁজে দেখার বিন্দুমাত্র চেষ্টা থাকেনা মানুষের মধ্যে।

clfevrdo

ছবির একটা দৃশ‍্যে স্নেহা চট্টোপাধ‍্যায়।

এমন একটা দৃষ্টিকোণ থেকেই পরিচালক পলাশ দে তাঁর আসন্ন ছবি অসুখওয়ালা তৈরি করেছেন। ছবিতে সিঙ্গুরের মফঃস্বল এলাকায় বসবাসকারী এক ওষুধ বিক্রেতা রুদ্রর জীবনের সামাজিক, পারিবারিক ও মানসিক ক্রাইসিসকে তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন পরিচালক। এই ছবির উল্লেখযোগ্য বিষয় হল ওষুধবিক্রেতা মাঝে মাঝে ওষুধদের সাথে কথা বলে। আর রুদ্রের চোখে সেই সব ওষুধরা এখানে অন্যান্য মানব চরিত্রের মতোই একক একটি চরিত্র। পরিচালকের এই ভাবনা সত্যিই বাহবা যোগ্য। 

4qr3h13g
ছবির একটা দৃশ্যে সায়ন ঘোষ।
 
ক্রমশ বোঝা যায় রুদ্রের মানসিক স্বাস্থ্যেও থাবা বসিয়েছে ক্রাইসিস। এমন পরিস্থিতিতে তাঁকে মায়ের মতো আগলে রাখে তাঁর স্ত্রী। দীর্ঘদিন বিয়ের পরেও সন্তানহীনতার কারণে স্বামী-স্ত্রী দুজনেই অবসাদের শিকার। এমন সময় তাঁদের জীবনের দ্বিতীয় ক্রাইসিস হয়ে দেখা দেয় রুদ্রর হ্যালুসিনেশন। এই পরিস্থিতি থেকে তাঁরা মুক্তি পান কীভাবে তা জানা যাবে এই ছবি দেখার পর। আপাতত দেখুন ছবির ট্রেলার:


ছবির কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন সায়ন ঘোষ এবং স্নেহা চট্টোপাধ্যায়। পরিচালনা করেছেন পলাশ দে। প্রথম ছবিতে পরিচালক, সায়নের চরিত্রের মধ্যে কিছুটা তাঁর নিজের জীবনের ছাপ রেখে দিয়েছেন। মফঃস্বলে নিজের ওষুধের ব্যবসা থাকায় তিনি নিজে যা প্রত্যক্ষ করেছেন তার ছায়া রয়েছে ছবিতে। সায়নকে এই ছবিতে পুরোপুরি অন্যরকম একটা চরিত্রে দেখা যাবে। NDTV-কে তিনি জানান, "আমি সব সময় নিজের কমফোর্ট জোনের বাইরে বেরিয়ে কাজ করতে চেয়েছি। আর পলাশ প্রথমবার আমাকে এমন একটা চরিত্রে ভেবেছে। এটা আমার কাছে একটা নতুন চ্যালেঞ্জ।" অন্যদিকে স্নেহা নিজের চরিত্র সম্পর্কে জানান, "আমার চরিত্রটা রুদ্রর স্ত্রীয়ের চেয়ে বেশি অনেকটা মাতৃসুলভ। রুদ্রকে সবসময় ওঁর স্ত্রী আগলে রেখেছে। আর ঘরোয়া একটা রূপ দেওয়ার জন্য ছবিতে কোনও মেক-আপ ব্যবহার করা হয়নি।"

s93u5ido

অসুখওয়ালা ছবির একটা দৃশ্যে স্নেহা ও সায়ন।

সায়ন এবং স্নেহা উভয়েই জানিয়েছেন, ছবিটা  খুবই কম বাজেটে তৈরি। তবে এখনই মুক্তি পাচ্ছে না অসুখওয়ালা। পলাশ দে পরিচালিত, সংলাপ ভৌমিক সম্পাদিত অসুখওয়ালা ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড স্কোর তৈরি করেছেন ময়ূখ-মৈনাক। ছবির সিনেম্যাটোগ্রাফি করেছেন অমর দত্ত। উৎপল পাল প্রযোজিত অসুখওয়ালা- দ্য পেইন হকার কবে মুক্তি পাবে তা এখনও নির্ধারন করা হয়নি।


বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
Advertisement
Advertisement