হোমআঞ্চলিক

৫০ পেরোল 'দুর্গেশগড়ের গুপ্তধন', ফের হিট সোনাদা-আবির-ঝিনুক ত্রয়ী

  | July 13, 2019 10:12 IST (কলকাতা)
'durgeshgorer Guptodhon'

আবির-ইশা-অর্জুন 'দুর্গেশগড়ের গুপ্তধন'র সন্ধানে (সৌজন্যে: ইনস্টাগ্রাম)

ফেলুদা, ব্যোমকেশ যেভাবে রাজপাট চালাচ্ছে বাংলা সিনে দুনিয়ায়, সোনাদা কি পারবে তাঁদের ছাপিয়ে দর্শকমনে ছাপ ফেলতে? প্রথম ছবি 'গুপ্তধনের সন্ধানে'-এও রমরমিয়ে ৫০ দিন চলার পর পরিচালক স্বস্তির শ্বাস ফেলেছিলেন, সোনাদাকে জিতিয়ে দিয়েছে জনতা-জনার্দন।

প্রথমবার পরিচালক ধ্রুব বন্দ্যোপাধ্যায় (Dhrubo Banerjee) যখন ইতিহাসের অধ্যাপক সোনাদা এবং তাঁর দুই সাগরেদ আবির আর ঝিনুককে সামনে এনেছিলেন, তখন একটু দ্বিধাই ছিল তাঁর মনে। ফেলুদা, ব্যোমকেশ যেভাবে রাজপাট চালাচ্ছে বাংলা সিনে দুনিয়ায়, সোনাদা কি পারবে তাঁদের ছাপিয়ে দর্শকমনে ছাপ ফেলতে? প্রথম ছবি 'গুপ্তধনের সন্ধানে' রমরমিয়ে ৫০ দিন চলার পর (completes 50 Days) পরিচালক স্বস্তির শ্বাস ফেলেছিলেন, সোনাদাকে জিতিয়ে দিয়েছে জনতা-জনার্দন। 

কান ও মেট গালায় দীপিকার অনুকরণে পোশাক এলজিবিটি সম্প্রদায়ের মানুষদের

সেই ভরসাতেই এবছর তাঁর সোনাদা ফ্যাঞ্চাইজির দ্বিতীয় ছবি 'দুর্গেশগড়ের গুপ্তধন' ( 'Durgeshgorer Guptodhon')। সোনাদা তাঁর দুই সহকারিকে নিয়ে পৌঁছে গেছিলেন দুর্গেশগড়ে। যেখানে নবাব সিরাজউদ্দৌল্লার প্রধান শত্রু জগত শেঠকে সাহায্য করে পারিতোষিক হিসেবে রাজা কৃষ্ণচন্দ্র রায় পেয়েছিলেন প্রচুর ধনসম্পত্তি। যা তিনি লুকিয়ে রেখে গিয়েছিলেন পৈতৃক ভিটে বনপুকুরিয়ায়। দুর্গাপুজোর আবহে কমিক এবং টানটান রহস্যে মোড়া এই ছবি এবারেও বাংলার দর্শকের আশীর্বাদ থেকে বঞ্চিত হয়নি। তারই ফলে ২৪ মে মুক্তি পাওয়ার পর সিনেপলিস, পিভিআর ডায়মন্ড সিটি, আইনক্স সাউথ সিটি, আইনক্স হাইল্যান্ড পার্ক, এবং নন্দনের সিঙ্গল স্ক্রিনে টানা ৫০ দিন ধরে চলছে ছবিটি। প্রযোজনায় এসভিএফ (SVF)।

রিভিউ দুর্গেশগড়ের গুপ্তধন: রহস্য-ইতিহাসের জমজমাট যুগলবন্দি


গুপ্তধন আবিষ্কারের পাশাপাশি এই ছবির অনন্য সম্পদ বাংলার কৃ্ষ্টি, সংস্কৃতি, ইতিহাসকে তুলে ধরার প্রয়াস। যা বাঙালিকে, এই প্রজন্মকে আরও সমৃদ্ধ করবে। এছাড়াও রয়েছে, আবীর চট্টোপাধ্যায়, ইশা সাহা, অর্জুন চক্রবর্তীর ঝকঝকে অভিনয়। লিলি চক্রবর্তী, অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়, কৌশিক সেন, জুন মালিয়া, খরাজ মুখোপাধ্যায় সহ এক ঝাঁক তারকার পাল্লা দিয়ে অভিনয়। ছবির আবহও ভাল লেগেছে বিক্রম ঘোষের মতো বিশিষ্ট ব্যাকগ্রাউন্ড স্কোরারের প্রতিভা গুণে।

দর্শকদের ভালোবাসায় আপ্লুত পরিচালক ধ্রুব জানিয়েছেন, 'শুধু ধন্যবাদ জানিয়ে দর্শকদের ছোট করব না। আমাকে, সোনাদাকে সব বয়সের মানুষ যেভাবে ভালোবেসেছেন তার জন্য আমি চিরকৃতজ্ঞ।'    


বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
Advertisement
Advertisement