হোমবলিউড

Review: 'মিশন মঙ্গল'-এর মুক্তি, ৫ অভিনেত্রীর ঝলক অক্ষয় কুমারের ছবিতে

  | August 15, 2019 21:44 IST (নয়াদিল্লি)
Mission Mangal Movie Review

অক্ষয় কুমারের ছবি মিশন মঙ্গল মুক্তি পেল, রয়েছে ৫ নায়িকা

Mission Mangal Movie Review: ছবিতে কিছু মজার দৃশ্য সত্যি হয় অক্ষয় কুমারের অভিনয় গুণে। ছবিতে অক্ষয় অভিনীত চরিত্রটিকে দেখা যায় যে কোন সমস্যা থেকে সমাধানের পথ খুঁজে বের করতে।

অভিনয়: অক্ষয় কুমার, তাপস্বী পান্নু, বিদ্যা বালান, সোনাক্ষী সিনহা, কীর্তি কুলহারি, নিথ্যা মেনন এবং শরমন যোশী

পরিচালক: জগন শক্তি

রেটিং: থ্রি স্টার (পাঁচের মধ্যে)

মহাকাশ অনুসন্ধান নিয়ে সর্বপ্রথম তৈরি হওয়া ভারতীয় ছবি মিশন মঙ্গল (Mission Mangal Movie Review)। ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইসরোর একটি ব্যর্থ মহাকাশ অভিযানের মাধ্যমে ছবির গল্প শুরু হয়। দেশের অগ্রণী মহাকাশ বিজ্ঞানী সতীশ ধাওয়ানের বাস্তব চরিত্রেরই যেন অনুকরণে তৈরি হয়েছে রাকেশ ধাওয়ানের চরিত্রটি, ওই চরিত্রে অভিনয় করেছেন অক্ষয় কুমার (Akshay Kumar Mission Mangal)। একটি মহাকাশ অভিযানে ব্যর্থ হওয়ায় সেটি নিয়েই তদন্ত চলছে, এই ব্যর্থতার গল্প দিয়েই ছবির (Mission Mangal Review) বীজ বোনা। মহাকাশ বিজ্ঞান নিয়ে নানা রকম পরীক্ষা নিরিক্ষার পক্ষে অক্ষয় অভিনীত রাকেশ ধাওয়ান চরিত্রটি, কিন্তু রাকেশ ধাওয়ানেরই সঙ্গে থাকা দলের অন্য সদস্যদের মধ্যে তারা শিন্ডে যে চরিত্রে অভিনয় করেছেন বিদ্যা বালান তিনি একমত হন না তাঁর সঙ্গে। পরিচালক জগন শক্তির এই ছবিতে এই দুই বিজ্ঞানীর মধ্যে মাঝেমধ্যেই মতবিরোধ ঘটতে দেখা গেলেও দুজনেই বড় স্বপ্ন দেখে, দুজনেই মঙ্গলের স্বপ্ন দেখে।


স্বাধীনতা দিবসে অসহিষ্ণুতা সরিয়ে সম্প্রীতির বার্তা দিল তারেক আলি, মুক্তি দেবী

ছবিতে তারা অর্থাৎ বিদ্যা বালানকে সবসময়ই দেখা যায় ঘর গৃহস্থালীর সঙ্গে কাজের জায়গার এক আশ্চর্য ভারসাম্য করে চলতে, যেখানে আসলে তাঁর মন জুড়ে সবসময়েই থাকে মঙ্গল গ্রহ। ওদিকে তাঁর স্বামী সুনীল, যে ভূমিকায় অভিনয় করেছেন সঞ্জয় কাপুর, তিনি তো কোনভাবেই স্ত্রীর কাজ সহজ করেন না, বরং দর্শকরাও সুনীল নামের চরিত্রটিকে নিয়ে বিরক্ত বোধ করে। বিদ্যা অর্থাৎ পর্দায় তারার দুই ছেলেমেয়ে, ছেলে সারাক্ষণ তাঁকে নানা বিষয়ে প্রশ্ন করতেই থাকে আর মেয়ে বেশ চটপটে, যদিও সুপার মম হিসাবে সেখানেও ব্যালেন্স করতে দেখা যায় বিদ্যা থুড়ি তারা শিণ্ডেকে।

তারা এবং ধাওয়ানকে মঙ্গল মিশনের  দায়িত্ব দেওয়া হয়, যে দলে সদস্য হিসাবে দেওয়া হয় আরও ৪ বিজ্ঞানীকে যাঁরা সকলেই মহিলা। উপগ্রহ ডিজাইনার বর্ষা পিল্লাই (নিথ্যা মেনেন), নেভিগেশন এবং যোগাযোগ বিজ্ঞানী কৃতিকা আগরওয়াল (তাপসী পান্নু), উপগ্রহ স্বায়ত্তশাসনের বিশেষজ্ঞ নেহা সিদ্দিকী (কীর্তি কুলহারি) এবং প্রপালশন ইঞ্জিনিয়ার একা গান্ধি (সোনাক্ষী সিনহা) ।

4ont52gg

মিশন মঙ্গলের একটি ছবি

বিদ্যা বালান ছাড়াও ছবির ৪ মুখ্য মহিলা চরিত্রও নানা সমস্যায় জর্জরিত। ব্যক্তিগত জীবনের নানা ওঠা পড়ার সঙ্গে মানিয়ে চলতে হয় বর্ষা পিল্লাই (নিথ্যা মেনেন), কৃতিকা আগরওয়াল (তাপসী পান্নু), নেহা সিদ্দিকী (কীর্তি কুলহারি) এবং একা গান্ধিকে (সোনাক্ষী সিনহা) । তবু তাঁর মধ্যেও মঙ্গল অভিযানের স্বপ্ন তাঁদের বাঁচার রসদ হয়।

Raksha Bandhan 2019: 'ভাই-বোনের সম্পর্ক অটুট', কেন বললেন অমিতাভ?

তবে এই বলিউডি ছবিটি (Mission Mangal Review) নিয়ে নানা প্রশ্ন মনে আসতেই পারে দর্শকদের। চড়া দাগের নাটকীয়তা দিয়ে এই জটিল বিজ্ঞানের গল্প বিনোদনের মোড়কে ঠিক কতটা যুক্তিযুক্তভাবে তুলে ধরা সম্ভব হয়েছে তা নিয়েও উঠতে পারে প্রশ্ন।  


ছবিতে অক্ষয় কুমার (Akshay Kumar Mission Mangal) অভিনীত চরিত্রটিই মিশন মঙ্গল অভিযানের সদস্যদের মধ্যে একমাত্র যে তাঁর রসবোধের মাধ্যমে ছবিতে একটা অন্য স্বাদ দিয়েছেন। ছবিতে অক্ষয় অভিনীত চরিত্রটিকে দেখা যায় যে কোন সমস্যা থেকে সমাধানের পথ খুঁজে বের করতে। তবে এই ছবির নায়িকারাও আকর্ষণীয় এবং বেশি বিশ্বাসযোগ্য কারণ তাঁরা চ্যালেঞ্জ এবং বিপর্যয়ের মুখোমুখি হয়ে লড়েছেন । প্রত্যেকটি চরিত্রই ছবিতে নানা মোড় নিয়ে আসতে সাহায্য করে।

dt6s1oi8

মিশন মঙ্গলের মুখ্য চরিত্রে রয়েছেন অক্ষয় কুমার

ছবির ৫ মহিলা চরিত্রই তাঁদের অভিনয় গুণে যথাসাধ্য চেষ্টা করেছেন ছবিটির প্রতি সুবিচার করতে। তবে বিদ্যা বালান ছবিতে যতটা দারুণ ততটা মন ছুঁতে পারেননি তাপসী পান্নু এবং কীর্তি কুলহারি। এই ছবিতে তাঁদের আরও কিছু করার ছিল। সোনাক্ষী সিনহাও বেশ ভাল অভিনয় করেছেন। মিশন মঙ্গলের বাকি চরিত্রগুলিও যথাযথ।

মহাকাশ অভিযানে নতুন কোনও পদক্ষেপ নেওয়ার আগেই যে ধরনের পরিস্থিতির সন্মুখীন হতে হয় তারই নজির মেলে মিশন মঙ্গলে। প্রথমবার ব্যর্থ হওয়ার পরই দ্বিতীয় পদক্ষেপে নয়া মোড় নেয় এই প্রচেষ্টা। আর তাতেই বাজিমাৎ। সেই ঘটনাই এবার গল্পের মধ্যে দিয়ে ছবির আকারে তুলে ধরেছেন পরিচালক।তবে সব মিলিয়ে মিশন মঙ্গল ছবিটিকে চলচ্চিত্র হিসাবে ব্যর্থ বলা যাবে না। পর্দায় রঙ চড়ানোর বিষয়টি যদি আপনি হজম করতে পারেন তাহলে ছবিটি খুব একটা মন্দ লাগবে না আপনার। 


বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
Advertisement
Advertisement