হোমটিভি

‘রান্নাবান্না’ নিয়ে আসছেন নন্দিতা-শিবপ্রসাদ, পাঁচশোয় পা ‘ইরাবতী’র

  | March 16, 2020 16:06 IST (কলকাতা)
Star Jalsha

জমিয়ে রান্নাবান্না করতে আসছেন নন্দিতা-শিবপ্রসাদ (সৌজন্যে: স্টার জলসা)

খাবার দেখলেই স্থির থাকলে না পারার বাঙালি অনুভূতি নিপাট ঘরোয়া ভঙ্গিতে স্টার জলসায় পর্দায় উঠে আসতে চলেছে ১৬ মার্চ থেকে।

খেতে আর খাওয়াতে বাঙালি খুবই ভালোবাসে। মা ছেলেকে, স্ত্রী স্বামীকে, দিম্মা-ঠাম্মা নাতি-নাতনিদের আদর করে খাওয়াচ্ছেন, এমন দৃশ্য তো ঘরে ঘরে দেখা যায়। উৎসব হলে তো কথাই নেই, বিনা উৎসবেও পৈটিক টানে কাত কলকাত্তাইয়া রসনায়। খাবার দেখলেই স্থির থাকলে না পারার এই অনুভূতিকে ছোটপর্দা একাধিক শো-তে তুলে ধরেছে। আরও একবার নিপাট ঘরোয়া ভঙ্গিতে স্টার জলসায় (Star Jalsha) পর্দায় উঠে আসতে চলেছে ১৬ মার্চ থেকে। রোজ সোম থেকে শনি বিকেল ৪টের এই শো-তে দিদিমা তনিমা সেন আদর করে নিত্যনতুন পদ রেঁধেবেড়ে খাওয়াবেন নাতি রক্তিম সামন্তকে। রান্নাবান্না (Rannabanna) শো-তে। তনিমা সেন এর আগে এই চ্যানেলের ফরচুন রান্নাবা্ন্না শো-র সঞ্চালক ছিলেন। রক্তিমকে দেখা গেছে গোপাল ভাঁড় ধারাবাহিকে।



এই উপলক্ষ্যে সম্প্রতি একছাদের নীচে দেখা গেছে শো-এর দিদা, নাতি এবং প্রযোজক সংস্থা উইন্জোজের দুই কর্ণধার নন্দিতা রায়, শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়কে। সঙ্গে ছিলেন 'ব্রহ্মা জানেন গোপন কম্মটি' ছবির গল্পকার জিনিয়া সেন। পোস্ত, বেলাশেষে, প্রাক্তন, গোত্র-র মতো বহু জনপ্রিয় ছবির প্রযোজক, পরিচালকজুটি রান্নাবান্নার প্রযোজক হিসেবে গাঁটছড়া বাঁধলেন স্টার জলসার সঙ্গে। দুই পরিচালকেরই অবশ্য কাজ শুরু ছোটপর্দা দিয়ে। সেই স্মৃতি রোমন্থন করে জানালেন, ভালো ছবি যেমন প্রিয় বাঙালিদের তেমনি ভালো রান্নাবান্নার সঙ্গেও কোনও আপোষ নেই। সেই জায়গা থেকেই এই শো প্রযোজনার কথা ভেবেছেন। একই সঙ্গে রান্নাবান্না রোজ দুটো করে মা-দিদার আমলের বিখ্যাত পদ নতুন স্টাইলে রাঁধতে শেখাবে। আর থাকবে দিদা-নাতির চিরকেলে সম্পর্ক, আদর-আবদার-খুনসুটি। 




২০১৬-র ২৫ জুলাই এই চ্যানেল নিয়ে এসেছিল মেগা কে আপন কে পর। চার বছর ধরে জনপ্রিয়তা ধরে রেখে সেই  মেগা সম্প্রতি পূরণ করল ১৩০০ এপিসোড। ১১ সিজন ধরে বহু নতুন চরিত্র যেমন এসেছে ধারাবাহিকে। সময়ের দাবি মেনে চলে গেছে বহু চরিত্রও। জবার জীবনগাথা নিয়ে চলতে থাকা এই ধারাবাহিকের তেরশো পর্ব পাসিত হল কেক কেটে, হইচই করে। উপস্থিত ছিলেন মেগার সমস্ত শিল্পীরা।

kjk7b3bo


এক ধাক্কায় ১৮ বছর পেরিয়ে গেছে Iraboti। ডাম্পু-তৃষা, আরুশি-অভ্র– বড় হয়ে গেছে সবাই। ফলে, একাধিক নতুন চরিত্র এসেছে মেগা ‘ইরাবতীর চুপকথা'-য়। সময়ের ব্যবধান ঘোচাতে ইরার চোখেমুখে তাই বয়সের ছাপ। চুলে রুপোলি ঝিলিক। হাতখোঁপা, কপালে সিঁদুরের টিপ, হালকা রঙের শাড়ি। চোখে বয়সের চশমা। ইরাবতী ওরফে মনামী ঘোষ সাজ-সজ্জায় এখন অনেকটাই ভারিক্কি। গল্প অনুযায়ী, সবে যখন একটু থিতু ইরা, একটু শান্তি এসেছে জীবনে তখনই মেলায় হারিয়ে যায় তার মেয়ে আরুশি। তারপর সময় গড়িয়েছে। দিন কেটে মাস, বছর ঘুরেছে। বয়স হয়েছে ইরার। কিন্তু মেয়ের অভাবে আজও সে যেন মরুভূমির মতোই রিক্ত, শূন্য। কিন্তু ইরার পণ, সে ফিরিয়ে আনবেই আরুশিকে। জনপ্রিয় এই ধারাবাহিকটিও পায়ে পায়ে পেরোল ৫০০ এপিসোড।


বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
Advertisement
Advertisement
Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com