হোমটলিউড

‘হয় এর বদলা নেব, নয় গোয়েন্দাগিরি ছেড়ে দেব’....কাকে হুমকি Tota-র?

কাকে শায়েস্তা করার শপথ নিচ্ছেন ফেলুদা? পরিচালকের টুইট করা ছবি আর ক্যাপশন বলছে, ফেলুদা সম্ভবত দুষ্টের দমনের দৃশ্যে মগ্ন।

  | January 31, 2020 12:21 IST (কলকাতা)
Srijit Mukherji

কিসের শপথে 'ফেলুদা' টোটা?

Highlights

  • শপথ নিলেন ফেলুদা
  • দুষ্টের দমন শিষ্টের পালনের
  • 'ফেলুদা ফেরত' সিরিজে 'ফেলুদা' টোটা রায়চৌধুরী

একের পর এক ছবি সামনে আসছে ফেলু মিত্তিরের। ফেলুদার অনুরাগীরা চমৎকৃত। এর আগে চারমিনার ঠোঁটে দেখা গেছিল Adda Times-র নতুন সিরিজ ‘Feluda Ferot'-এর। যদিও ধূমপান নিয়ে ছবির ক্যাপশনে সতর্কবার্তা দিয়েছেন পরিচালক Srijit mukherji-র নতুন ফেলু মিত্তির ওরফে টোটা রায়চৌধুরী। কিন্তু এবার তিনি যথেষ্ট সিরিয়াস। কাকে শায়েস্তা করার শপথ নিচ্ছেন ফেলুদা? পরিচালকের টুইট করা ছবি আর ক্যাপশন বলছে, ফেলুদা সম্ভবত দুষ্টের দমনের দৃশ্যে মগ্ন। মন্দিরে হাজার জ্বলন্ত প্রদীপের সামনে দাঁড়িয়ে, শক্ত চোয়ালের সেই প্রতিজ্ঞা দু'বার ভাবতে বাধ্য করবে অপরাধীকেও। সম্ভবত ‘ছিন্নমস্তার অভিশাপ‘ গল্পের শুটিংয়ের ছবি এটি। দেখে নিন সেই টুইট:

২০২০ সরগরম! ‘ফেলুদা' টোটার পর ব্যারিস্টার চৌধুরী ‘শঙ্কু' ধৃতিমান


একই সঙ্গে তিনি সৃজিত শুটিং স্পট থেকেও ছবি শেয়ার করেছেন। রইল সেই সমস্ত ছবিও:


কাঠমাণ্ডুতে ছবির শুট করেছেন পরিচালক। সেখানে শুটের ফাঁকে গোটা টিম মোমো খেতে ভোলেননি, সেকথাও জানিয়েছেন পরিচালক। বলা যেতেই পারে, প্রায় ফেলুদার স্রষ্টা সত্যজিৎ রায়ের মতোই স্কেচ মিলিয়ে চরিত্র বেছে শুট করছেন সৃজিত।



পথের পাশে এস্রাজ বাজিয়ে ভিক্ষে করা সেই বৃদ্ধও যেন উঠে এসেছেন বইয়ের পাতা থেকে। অলস দুপুরে যাঁর বেসুরো বাজনার সুর মনকে উদাস করত তখনও...এখনও।

Exclusive: ‘ফেলুদার পরে অভিনয় থেমে গেলেও ক্ষতি নেই':  টোটা রায়চৌধুরী

শুটের ছবি বলছে, গল্পের প্রতিটি চরিত্র যেন সত্যজিৎ রায়ের আঁকা ছবি। ১৯৭৮-এর গন্ধ মেখে। Adda Times-এর জন্য Srijit Mukherji-এর দু'টি সিরিজের একটি 'Feluda Ferot'-এর 'ছিন্নমস্তার অভিশাপ'-এ। দেশ পত্রিকায় ধারাবাহিকভাবে প্রকাশিত হওয়ার পর ১৯৮১ সালে এটি বই আকারে বেরোয়। সেই সময়ের বাঙালিরা প্রায়ই হাওয়া বদল করতে যেতেন ঝাড়খণ্ডের হাজারিবাগে। ফেলুদাও তাঁর সুই সহযোগী তোপশে আর লালমোহন গাঙ্গুলি ওরফে জটায়ুকে নিয়ে গেছেন সেখানে। হঠাৎই তাঁর আলাপ হয় ইলেকট্রনিক কোম্পানিতে কর্মরত প্রীতিন্দ্র চৌধুরীর সঙ্গে। পরে ঘটনাসূত্রে জানা যায় তিনি শহরের নামজাদা ব্যারিস্টার মহেশ চৌধুরীর ছেলে। সন্দীপ রায়ের প্রফেসর শঙ্কুর চরিত্রে অভিনয়ের পর এই মহেশ চৌধুরীর চরিত্রেই দেখা যাবে Dritiman Chatterjee-কে।

প্রকাশ্যে ‘যত কাণ্ড কাঠমান্ডু'র লুক, আসছেন ভরত কল....

বাকি ছিলেন Maganlal Meghraj। সেই জায়গা পূর্ণ করলেন Kharaj Mukherjee। বলা ভালো, ষোলোর জায়গায় আঠেরো আনা পূরণ করেছেন তিনি। অন্য চরিত্রদের সৃজিত যেমন নিজে টুইটে সবার সামনে এনেছেন, এক্ষেত্রেও ব্যতিক্রম হয়নি। পরিচালকের প্যান্ডোরা বক্স থেকে শুরু থেকে একে একে সামনে এসেছেন ‘Jawto Kando Kathmandute 'র কুশীলবরা। মগললালের পর সামনে এলেন দ্বিতীয় গল্প ‘Jawto Kando Kathmandute 'র অন্যতম মুখ্য চরিত্র Anantalal Batra। আরও একবার ফেলুদার স্রষ্টা সত্যজিৎ রায়ের আঁকা ছবির সঙ্গে মিলিয়ে এই চরিত্রাভিনেতাকে বেছেছেন সৃজিত। যাঁকে ঘিরে রহস্য দানা বাঁধবে গল্পে সেই চরিত্রে দেখা যাবে জনপ্রিয় অভিনেতা Bharat Kaulকে।


বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
 
Advertisement
Advertisement
Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com