হোমবলিউড

মুখ খুলল Emraan Hashmi-র ক্যান্সার-জয়ী ছেলে, হাসি ফুটল সোনালির

আয়ানের কথা শেষ হতেই উঠে দাঁড়িয়ে ওকে সম্মান জানালেন সোনালি। এটাই আমাদের পরম পাওয়া। আগামী দিনের যুদ্ধে জেতার রসদ।

  | February 06, 2020 10:41 IST (নয়া দিল্লি)
Ayaan Hashmi

আয়ানের সঙ্গে সোনালি-প্রিয়া (সৌজন্যে ইনস্টাগ্রাম)

Highlights

  • অনুষ্ঠানে দেখা গেছে সোনালি বেন্দ্রকে
  • আয়ানের মা একটি ভিডিও শেয়ার করেন
  • সবার মন জয় করেছে ইমরান হাসমির ছেলে আয়ানের কথা

একমাত্র ছেলের ক্যান্সার হয়েছে। কথাটা শোনামাত্রই ঘুম উড়েছিল Emraan Hashmi-র। চোখে অন্ধকার দেখেছিলেন, মাত্র ১০ বছরের ছেলে Ayaan-কে নিয়ে ভাবতে ভাবতে। World Cancer Day উপলক্ষ্যে ছোট্ট আয়ান মুখ খুলল তার অভিজ্ঞতা নিয়ে। আয়ানের সেই কথা ইনস্টায় শেয়ার করেছেন তার মা পরভীন হাসমি। সঙ্গে ক্যাপশন: "কার্টার রোড এমফিথিয়েটারে। Nargis Dutt Foundation-এর এক অনুষ্ঠানে নিজের অভিজ্ঞতা ভাগ করে নিল আমাদের দশ বছরের ছেলে। এসেছিলেন আমার ছেলের মতোই ক্যান্সার ক্রুসেডার Sonali Bendre। ছিলেন নার্গিস-সুনীল দত্তের মেয়ে প্রিয়া দত্তও। প্রিয়াকে আন্তরিক ধন্যবাদ আয়ানকে কিছু বলার সুযোগ দেওয়ায়। ওর নির্ভীক মন হাসি ফুটিয়েছে সোনালির মুখে। আয়ানের কথা শেষ হতেই উঠে দাঁড়িয়ে ওকে সম্মান জানালেন সোনালি। এটাই আমাদের পরম পাওয়া। আগামী দিনের যুদ্ধে জেতার রসদ।" 

'আমরা মারণ রোগের যোদ্ধা', বিশ্ব ক্যান্সার দিবসে বার্তা Sonali Bendre-র

সেই পোস্টে ছেলেকে উৎসাহ দিয়ে পরভীন আরও জানান: "ছেলেকে নিয়ে আমরা খুবই গর্বিত। মারণ রোগ ওর শরীরে থাবা বসিয়েছেI তারপরেও ওর মনে কোনও ভয় বা নেচিবাচক ছাপ পড়েনি। এই ক'বছরে আয়ান অ-নে-ক পরিণত।"



সেদিনের অনুষ্ঠানে কী বলল আয়ান? শুরুতেই ছোট হাসমি বলে: "ক্যান্সার শব্দটা শুনলেই আতঙ্ক গ্রাস করে সবাইকে। যার হয়েছে তাকে। তার পরিবারকেও। কিন্তু এই রোগের সঙ্গে রোজের যুদ্ধ আমাকে শক্ত হতে শিখিয়েছে। শিখিয়েছে জীবনকে উপভোগ করতে। প্রতিদিন আনন্দ করে বেঁচে থাকতে।" ২০১৪-য় মাত্র ৪ বছর বয়সে মারণ রোগ ধরা পড়ে আয়ানের। পাঁচ বছর ধরে চিকিৎসার পর এখন সে বিপদ মুক্ত। 



আয়ান আরও বলে: 'শরীর ভেঙে গেলেও মন ভাঙতে দেবেন না। তাহলেই জয় আপনার। মৃত্যুও ফিরে যাবে আপনার কাছ থেকে। আর পাঁচটা রোগের মতোই মনে করুন একে। হেলায় অ্যান্সার দিন ক্যান্সারকে। আমি এভাবেই জিতে ফিরেছি।'

ফের অসুস্থ Rishi, ভর্তি হাসপাতালে

১০ বছরের ছেলে কথা শেষ করে সবাইকে একটাই অনুরোধ জানিয়ে: "মারণরগকে হারাতে দরকার, ভয়শূন্য, শক্ত, ইতিবাচক মন। যা প্রতি মুহূর্তে এগিয়ে যেতে সাহায্য করবে আপনাকে। যাঁরা মৃত্যুকে খুব কাছ থেকে দেখে ফিরেছেন আশা, তাঁরা সবাই এই মানসিকতা নিয়েই বাঁচছেন। দয়া করে সবাই মনে রাখবেন, সময়ে চিকিৎসা করালে ক্যান্সারও কিন্তু সারে।"



এর আগে ইমরান এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন: "গত পাঁচ বছরের লড়াইয়ের পর আয়ান একটু একটু করে সুস্থ হয়ে উঠছে। আমি-পরভীন কী ভয়ানক অবস্থার মধ্যে দিয়ে গেছি, বলে বোঝানোর নয়। একমাত্র ছেলে আমাদের ছেড়ে চলে যাবে। এই ভয় সারাক্ষণ কুরে কুরে খেত। মন ভেঙে গেছিল একদম। আমরা সবাই যেন নতুন জীবন ফিরে পেলাম পাঁচ বছর লড়াইয়ের পর।" 



ইমরান হাসমিকে শেষ দেখা গেছে নেটফ্লিক্সের বার্ড অফ ব্লাড-এ। 


বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
 
Advertisement
Advertisement
Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com