হোমআঞ্চলিক

Happy Birthday: বাঙালির ফেলুদা, বাংলার বেণুদা - শুভ জন্মদিন সব্যসাচী চক্রবর্তী

  | September 08, 2018 19:54 IST (কলকাতা)
Feluda Detective

সব্যসাচী চক্রবর্তী (ছবি সৌজন্য: টুইটার)

আশির দশকেই সত্যজিতের সঙ্গে দেখা করেন ‘ফেলুদা’র অনুরাগী সব্যসাচী। সত্যজিতের সঙ্গে ফেলুদার সিনেমায় কাজও করতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু সত্যজিৎ জানিয়ে দেন ‘ফেলুদা’ নিয়ে কোনও আগামী পরিকল্পনা নেই তাঁর

1979 সালে শেষবারের মতো বড়ো পর্দায় দেখা গিয়েছিল ফেলুদাকে। তীক্ষ্ণ দৃষ্টি আর ধারালো মগজাস্ত্র নিয়ে মগনলাল মেঘরাজকে কাশীতে নাস্তানাবুদ করার পর সে এক দীর্ঘ অপেক্ষা। পরিচালক সত্যজিৎ রায় ঠিকই করে ফেলেছিলেন ‘ফেলুদা’কে নিয়ে সিনেমা আর তিনি বানাবেন না। তবু ফেলুদা ফিরলেন, 17 বছরের খরা কাটিয়ে ফেলুদা ফিরলেন। তবে সত্যজিৎ সৌমিত্রের হাত ধরে নয়। বাঙালির ফেলুদা হয়ে দেখা দিলেন সেই সময়ের থিয়েটারের পরিচিত মুখ সব্যসাচী চক্রবর্তী। আজ 8 সেপ্টেম্বর আমাদের দ্বিতীয় ফেলুদা 61 বছরে পা দিলেন।

 

jtqtaas

শুভ জন্মদিন ফেলুদা
Photo Credit: গুগল

আশির দশকেই সত্যজিতের সঙ্গে দেখা করেন ‘ফেলুদা’র অনুরাগী সব্যসাচী। সত্যজিতের সঙ্গে ফেলুদার সিনেমায় কাজও করতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু সত্যজিৎ জানিয়ে দেন ‘ফেলুদা’ নিয়ে কোনও আগামী পরিকল্পনা নেই তাঁর। 1988 সালে মারা গিয়েছেন বলিষ্ঠ অভিনেতা সন্তোষ দত্ত। লালমোহন গাঙ্গুলি তথা জটায়ুর ভূমিকায় সন্তোষ দত্ত ছাড়া কাউকেই ভাবতে পারেননি সত্যজিৎ। সুতরাং ফেলুদাকেও বড় পর্দায় আর কখনোই আনবেন না বলে একপ্রকার সিদ্ধান্তই নিয়ে নিয়েছিলেন। তবু ছেলে সন্দীপ রায়ের সঙ্গে একবার সব্যসাচীকে কথা বলতে বলেন তিনি। যদিও সন্দীপ রায়ও কোনও আশার আলো দেখাতে পারেননি তখন। 1994 সালে সন্দীপ রায় ডেকে পাঠান সব্যসাচীকে, জানান বাবার লেখা ফেলুদার গল্প নিয়ে ফের কাজ করতে চান তিনি। বাকিটা ইতিহাস।


kqqshlcg

সব্যসাচীর অভিনীত সিনেমায় ফেলুদা চরিত্র
Photo Credit: গুগল

সৌমিত্রের পর পর্দায় ফের ফেলুদার সাথে আমাদের পরিচয় করান বেণুদা (সব্যসাচীর ডাকনাম)। টেলিভিশনে একের পর এক ফেলুদা সিরিজের গল্প আমাদের উপহার দিয়েছেন সব্যসাচী, শুরুটা ‘বাক্সরহস্য’ দিয়ে। 10 টি টিভি সিরিজ আর 5 টি পূর্ণ দৈর্ঘ্যের সিনেমায় ফেলুদার ভূমিকায় দেখা গিয়েছে সব্যসাচীকে। 1979 এর পর ফের বড় পর্দায় ফেলুদা আসেন সন্দীপ রায়েরই হাত ধরে। 2003 সালে ‘বোম্বাইয়ের বোম্বেটে’ সিনেমার সাফল্যের পর ‘কৈলাশে কেলেঙ্কারি’ (2007), ‘টিনটরেটোর যীশু’ (2008), ‘গোরস্থানে সাবধান’ (2010) এবং ‘রয়্যাল বেঙ্গল রহস্য’ (2011) সবেতেই বাঙালির ফেলুদা সব্যসাচীই।

 

egog6qa

তোপসে শাশ্বত আর জটায়ু বিভু ভট্টাচার্যের সঙ্গে ফেলুদা
Photo Credit: গুগল

তারপর থেকে বহু বদল ঘটেছে ফেলু মিত্তির বা তোপসে বা জটায়ুর ভূমিকায়। তবু বাঙালি সিনেমার পর্দায় গোয়েন্দা বলতে যে কতিপয় মুখ মনে রেখেছেন সব্যাসাচী তাঁদের মধ্যে শীর্ষস্থানীয়। সত্যজিতের আঁকা তীক্ষ্ণ চোখ, বুদ্ধিদীপ্ত মেজাজ আর কম কথায় মানুষ প্রদোষ মিত্রকে বাঙালি মননে এভাবে বাঁচিয়ে রাখার জন্য ধন্যবাদ সব্যাসাচীকে। আজ জন্মদিনে আমাদের শ্রদ্ধার্ঘ বাঙালির ফেলুদাকে, বাংলার বেণুদাকে।


বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
Advertisement
Advertisement