হোম

এই বসন্তে শহরবাসীকে এক অন্য প্রেমের গল্প বলতে আসছে 'নগরকীর্তন'

  | January 17, 2019 21:51 IST (কলকাতা)
Nagarkirtan Trailer

নগরকীর্তনে ঋদ্ধি সেন ও ঋত্বিক চক্রবর্তী। (সৌজন্যে ইউটিউব)

আগামী ১৫ই ফেব্রুয়ারি থেকে নগরকীর্তনে সামিল হয়ে মধু ও পরিমলের চোখে দেখে নিন ভালোবাসার ভিন্ন রূপ।

মাছে-ভাতে বাঙালি প্রেমকে কেবলমাত্র নারী ও পুরুষের প্রেমের মধ্যেই সীমাবদ্ধ করে রেখেছে। তার বাইরে প্রেমের বিশাল ব্যাপ্তি আজও সকলে স্বীকার করে উঠতে পারেনি। অথচ নিতাই-গৌরাঙ্গের কথা লোকমুখে অত্যন্ত প্রচলিত। ৩৭৭ ধারা পাশ হলেও আজও কিন্তু সমপ্রেমকে ভালোভাবে মেনে নিতে পারেনি মানুষ। ঠিক যেমনভাবে আজও স্বীকার করতে পারেনি সমাজের তৃতীয় লিঙ্গের মানুষের অস্তিত্বকে, যাকে প্রচলিত ভাষায় 'হিজড়া' সম্প্রদায় বলে চিহ্নিত করেছে। কিন্তু আসলে প্রেমের ব্যাপ্তি বিশাল। তাকে বাঁধতে পারার সাধ্য আমাদের কারও নেই। তাই কেবলমাত্র নারী-পুরুষেই না, মদনবাণে কে কখন বিদ্ধ হয় তা হলফ করে বলতে পারে না কেউই। 

টেলিভিশনে সমকামী দুই মহিলার গল্প 'একটু উষ্ণতার জন্য' বা 'আর একটি প্রেমের গল্প' সিনেমা পরিচালনার জন্য সমালোচনার শিকার হওয়ার পরে যে পরিচালকই দর্শকদের বাহবা কুড়িয়েছিলেন আবারও তাঁর হাত ধরেই আসছে এক অন্য প্রেমের গল্প 'নগরকীর্তন'। তেমনই এক সমপ্রেমের গল্প এবার বড়পর্দায় সকলকে বলতে হাজির হয়েছেন পরিচালক কৌশিক গাঙ্গুলী। 'বিজয়া'র পর ২০১৯ সালে পরিচালকের দ্বিতীয় ছবি 'নগরকীর্তন' মুক্তি পেতে চলেছে আগামী ১৫ই ফেব্রুয়ারি।

আরও পড়ুনঃ ৫০'এ পা সত্যজিতের ‘গুগাবাবা'! ১ মার্চ অ্যানিমেশনে ধরা দেবে ‘গুপি গাওয়াইয়া বাঘা বাজাইয়া'

'নগরকীর্তন'কে নিয়ে বাঙালির উত্তেজনার পারদ এই মুহূর্তে শিখরে পৌঁছে গিয়েছে। কারণ এর আগে দেশ বিদেশে বিভিন্ন চলচ্চিত্র উৎসবে দর্শক ও সমালোচকদের প্রশংসা এবং গতবছর এই ছবিতে অভিনয় করেই ভারতের কনিষ্ঠতম অভিনেতা হিসাবে জাতীয় পুরস্কার লাভ করেছেন ঋদ্ধি সেন। সদ্য মুক্তি পাওয়া ছবির ট্রেলারে দেখা গিয়েছে একজন 'তৃতীয় লিঙ্গ' বা তথাকথিত 'হিজড়ে' সম্প্রদায়ের মানুষের চরিত্রে অভিনয় করেছেন এই কনিষ্ঠ অভিনেতা। তাঁর অভিনীত চরিত্রের নাম পরিমল, যে নিজেকে মনে প্রাণে একজন মহিলা মনে করে। এবং জীবনের বিশেষ পুরুষটির একটু সাহায্য পেলে সে নিজের জীবন থেকে পরিমলের চিহ্নটুকু মুছে ফেলে নতুনভাবে সব শুরু করতে চায়। এখানে তাঁর জীবনের বিশেষ পুরুষটি হল মধু। মধুর চরিত্রে অভিনয় করেছেন ঋত্বিক চক্রবর্তী। 


কৌশিক গাঙ্গুলি এই ছবিতে যেমন পরিমল ও মধুর সম্পর্ক তুলে ধরেছেন তেমনই তৃতীয় লিঙ্গের মানুষের জীবনযাত্রা এবং সমাজে কীভাবে তাঁদের যন্ত্রণা সহ্য করে বেঁচে থাকতে হয় সে দিকেও আলোকপাত করেছেন। এক কথায়, সিগনালে বা বাস ট্রেনে যাদের দেখে আমরা আতঙ্কে শিউরে উঠি কিংবা পাশ কাটিয়ে চলে যাই, তাদের জীবনযাত্রা নগরকীর্তনে ফুটিয়ে তুলতে চেয়েছেন বলেই জানিয়েছেন পরিচালক। পাশাপাশি রেখে গিয়েছেন বৈষ্ণব সম্প্রদায়ের মানুষের জীবনযাত্রার ছোঁয়া।


অভিনেতা থেকে পরিচালক, সকলেই একবাক্যে জানিয়েছেন, "নগরকীর্তন অবশ্যই ভালোবাসার ছবি।" ছবিতে একজন তৃতীয় লিঙ্গের মানুষের ভূমিকায় অভিনয় করা কতটা চ্যালেঞ্জিং ছিল? প্রশ্নের উত্তরে ঋদ্ধি জানান, "আমাকে ওয়ার্কশপ করতে হয়েছে। তার পাশাপাশি আমি বাড়িতে আমার মা এবং বান্ধবী সুরঙ্গনাকে খুব ভালোভাবে পর্যবেক্ষণ করেছি। ওদের হাঁটাচলা, কথা বলা, এমনকী কীভাবে ওরা জলের গ্লাস ধরে, জল খায়, কীভাবে বসে সেগুলো আমাকে খুব ভালো ভাবে রপ্ত করতে হয়েছিল।"

ঋদ্ধি সেন, ঋত্বিক চক্রবর্তী ছাড়াও নগরকীর্তনে অভিনয় করেছেন বিদীপ্তা চক্রবর্তী। তাছাড়া, পরিচালক তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের দিয়েই অভিনয় করিয়েছেন এই ছবিতে। মধু ও পরিমলের প্রেম শেষমেশ কি পরিণতি পাবে? নাকি রাধা কৃষ্ণের মতোই অপূর্ণ থেকে যাবে তাদের ভালোবাসা? আগামী ১৫ই ফেব্রুয়ারি থেকে নগরকীর্তনে সামিল হয়ে মধু ও পরিমলের চোখে দেখে নিন ভালোবাসার ভিন্ন রূপ।

বিনোদনের আরও খবর পড়ুন এখানে


বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
Advertisement
Advertisement
Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com