হোমবলিউড

জানেন, কীভাবে বয়সের এত ফারাক সত্ত্বেও প্রেমে পড়লেন মিলিন্দ-অঙ্কিতা?

"সবে জীবন উপভোগ করতে শুরু করেছি। এখনও আমার হাতে পড়ে রয়েছে গোটা জীবন !" অঙ্কিতা কোনওয়ার

  | June 03, 2019 19:05 IST (নিউ দিল্লি)
Milind Soman

যুগলে মিলিন্দ-অঙ্কিতা (সৌজন্যে: ইনস্টাগ্রাম)

Highlights

  • মিলিন্দ সুমনের থেকে তাঁর স্ত্রী অঙ্কিতা কানোয়ার ২৬ বছররে ছোট
  • বিয়ের আগে তাঁরা ৫ বছর ডেট করেছিলেন
  • গত বছরের এপ্রিলে মিলিন্দ-অঙ্কিতা বিয়ে করেন

কথায় বলে, প্রেম নাকি বয়স মানে না। মদন শরে আপনি যদি একবার বিদ্ধ হন তাহলে প্রিয় মানুষটি ছোট না বড়---সেসব দেখার নাকি দরকারই পড়ে না! মিলিন্দ সোনম (Milind Soman)আর অঙ্কিতা কোনওয়ার (Ankita Konwar), তো তেমনটাই বলছেন। ২৬ বছরের ফারাক থাকা সত্ত্বেও একে অন্যকে ভালোবেসেছেন প্রাণ দিয়ে। চুটিয়ে পাঁচ বছর ডেট করেছেন। তারপর গত বছরের এপ্রিলে বিয়ে সেরেছেন অনাড়ম্বরে। সম্প্রতি, সোশ্যাল মিডিয়া ব্লগ হিউম্যানস অফ বম্বে (Humans Of Bombay)-তে অঙ্কিতা ফাঁস করেছেন সেই রহস্য। জানিয়েছেন চেন্নাইয়ের এক হোটেলে তিনি প্রথম দেখেন মিলিন্দকে। অঙ্কিতার বন্ধুরাই নাকি এই রসায়ন তৈরির অনুঘটক। তাঁরাই অঙ্কিতাকে জোর করেন কথা বলার জন্য। কথা বলার পর থেকেই নাকি মুগ্ধ দু-জনেই। একে অন্যের দিক থেকে চোখ সরাতে পারছিলেন না কিছুতেই।

 "সেই সময় আমার প্রেমিক সদ্য প্রয়াতI ভাঙা মন নিয়ে ঠিক করেছিলাম, দেশে কার জন্য থাকব! তার চেয়ে এয়ার এশিয়ায় কেবিন ক্রু-র কাজ নিয়ে মালয়েশিয়ায় চলে যাব। যেমন ভাবা তেমনি কাজ। যোগ দিলাম সংস্থায়। আমার প্রথম পোস্টিং ছিল চেন্নাই। কর্মসূত্রে আমি তখন সহকর্মীদের সঙ্গে হোটেলবাসী। ওখানেই একদিন দেখলাম টল, হ্যান্ডসাম মিলিন্দ সোনমকে (Milind Soman)! আমি বরাবরই মিলিন্দের অন্ধ ভক্ত। বন্ধুরা বলল, যা গিয়ে কথা বল। আমি গিয়ে উইশ করলাম। কিন্তু মিলিন্দ সেদিন এত ব্যস্ত যে চোখ তুলে তাকানোর সময়টুকুও পাননি। দিন কয়েক পরে হোটেলের  নাইট ক্লাবে দেখা হল আবার। সেদিন দেখি মিলিন্দ বারেবারে আমার দিকে তাকাচ্ছে। সেদিন আবার গিয়ে বললাম, আমার সঙ্গে ডান্স করবেন? রাজি হল মিলিন্দ। সেদিনই অনুভব করেছিলাম, ভালোবাসার একটা বলয় যেন আমাদের ঘিরে তৈরি হয়েছে।"

 "যদিও তখনই আমি চাইছিলাম না যে মিলিন্দ আর আমি কাছাকাছি আসি। কারণ, তখনও মন থেকে সদ্য চলে যাওয়া প্রেমিকের স্মৃতি মোছেনি। কিন্তু সেরাতের পর মিলিন্দ আমার ফোন নম্বর চাইল। নতুন নম্বর। ফলে, আমার নম্বর আমার নিজেরই মনে নেই। এদিকে সঙ্গে ফোনটাও নেই। তখন মিলিন্দ আমার এক বন্ধুকে ফোন নম্বর দিয়ে বলল, আমাকে ফোন নম্বর মেসেজ করে দিও।" 

মিলিন্দ চলে গেলেন। কিন্তু অঙ্কিতা কিছুতেই ভুলতে পারছেন না তাঁকে! প্রতি মুহূর্তে যেন অভাব বোধ করছেন মিলিন্দের। প্রতি মুহূর্তে বুঝছেন, মিলিন্দ তাঁর পুরুষ ("the man"). তারপর? "একটা করে দিন যায় আর আমার আঙুলগুলো নিশপিশ করতে থাকে মিলিন্দ মেসেজ করার জন্য। কিছুতেই নিজেকে আটকাতে পারি না। শেষে ওকে জানালাম, ওর সঙ্গে ডিনারে যেতে চাই। দেখা হল আবার। না চাইতেই আমি যেন মিলিন্দের সঙ্গে জড়িয়ে পড়তে লাগলাম আষ্টেপৃষ্ঠে। এবার আমাদের ঘনঘন দেখা হতে লাগল। আর মেসেজ তো আছেই। শেষে না থাকতে পেরে আমার প্রেমিকের কথা জানালাম মিলিন্দকে। বললাম, ও যেন এখনও আমার সঙ্গে রয়েছে। এভাবে কীভাবে এই সম্পর্ক নিয়ে এগোব আমি! সব শুনে মিলিন্দ আশ্বস্ত করল, আমি তোমায় ভালোবাসি মানে তোমার সবটা নিয়েই ভালোবাসি। তোমার অতীত এর বাইরে নয়। চিন্তা কর না। আমি পাশে আছি। সব ঠিট হয়ে যাবে। সেদিন আরও একবার মনে হল, মিলিন্দ কি আমার জন্যই দুনিয়ায় এসেছে!'.


অঙ্কিতা আরও জানিয়েছেন, "এভাবে টানা পাঁচ বছর ডেটের পর মিলিন্দ বলল, আমরা কেউই আর কাউকে ছেড়ে থআকতে পারছি না। এবার বিয়ে করে নেওয়াটা খুব জরুরি। আমি সব জানালাম বাড়িতে। সবাই যদিও খুব ভয় পেয়েছিল, বয়সের ফারাক নিয়ে। কিন্তু মিঞা-বিবি রাজি তো ক্যায়া করেগা কাজি! ফলে, আলিবাগে বিয়েটা হয়েই গেল। আমাদের বিয়ের সাক্ষী ছিল প্রকৃতি। উচ্ছ্বল ঝরণা। মিলিন্দ আমাকে বাঁচতে শিখিয়েছে। জীবনকে উপভোগ করতে শিখিয়েছে। ওর হাত ধরে আমি হাঁটছি জীবনপথে। এখনও লম্বা রাস্তা পার হব একসঙ্গে।"

অঙ্কিতার পোস্ট দেখে নিন: 


@withrepost @officialhumansofbombay "I decided to move out of the country & started working with Air Asia, as a cabin crew in Malaysia. It was at that time that my then boyfriend, suddenly passed away. It was heartbreaking-it felt like there was no coming back. A couple of months later, I got posted in Chennai. I was staying in a hotel with my colleagues. Once, in the lobby, I saw a tall, rugged man. It was Milind Soman! I was a big fan! So I went to say hello, but he was busy. A few days later, I saw him again at the hotel's nightclub. I kept looking at him & he was staring at me too! My friends urged me to go talk to him. So I asked if he'd like to dance & he obliged! There was a vibe-I could feel it! But I didn't want to get too involved. So I excused myself & I thought he'd forget about me. But soon he came looking for me-he had to go so he asked for my number. It was a new number, so I didn't remember it & didn't have my phone on me either. So he made my friend take his number & asked me to message him. A few days passed by & I couldn't get him out of my mind. So I texted him & we met again after a week, for dinner. After that, we'd constantly text & meet. But I still couldn't bring myself to get fully involved. Until one day, I told him that because of my past, with my boyfriend, there was a part of me that couldn't let go. To which he said, 'When I fell in love with you, I fell in love with all of you. Even the part that carries the burden of your past. So don't be afraid, we're in this together.' That's when I knew-this was the man for me! We dated for 5 years after that-until we decided to get married! My family & a few others were worried because of the age gap between us. But it wasn't an issue for us! So when they saw us together & they saw how happy I was around him, they agreed too! Believe it or not, we got married thrice! We had a traditional wedding in Alibaug, a white wedding in Spain under a waterfall & the third, at a place called 'the end of the world' there. He's the best thing that's happened to me; he taught me to let go, to fall in love, to be happy. And our adventures have only just begun-I can't wait to live the rest of my life.

A post shared by Ankita Konwar (@ankita_earthy) on


গত বছরের এপ্রিলে মারাঠা মতে বিয়ে সারার পর স্পেনে গিয়ে আবারও বিয়ে করেন দু-জনে। দেখুন সেই ছবি















মিলিন্দ সোমন একজন জনপ্রিয় মডেল এবং ফিটনেস এক্সপার্ট। তাঁকে শেষ দেখা গেছে  ইন্ডিয়াস নেক্সট টপ মডেল (India's Next Top Model) রিয়েলিটি শো-এ। এছাড়াও তিনি অভিনয় করেছেন শেফ (Chef) এবং বাজিরাও মস্তানি (Bajirao Mastani)-তে। 


বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
 
Advertisement
Advertisement