হোমবলিউড

'চোখ দুটোই আটকে দিয়েছিল', ইরফানকে প্রথম দেখার স্মৃতিতে বুঁদ নাসিরুদ্দিন

'আমাকে দেখেই উঠে দাঁড়াল। থমকে গেছিলাম সেই মুহূর্তে। ওরকম ভাসা, ভাসা ডাগর চোখ পুরুষের হয়!' নাসিরের স্মৃতিতে ইরফান খান

  | May 03, 2020 09:28 IST (নয়া দিল্লি)
Naseeruddin Shah

এক দেখাতেই ইরফানের অনুরাগী নাসিরুদ্দিন শাহ

Highlights

  • শোকস্তব্ধ নাসিরুদ্দিন শাহের স্মৃতিতে ইরফান খান
  • পোস্টে প্রয়াত অভিনেতাকে স্মরণ বর্ষীয়ান অভিনেতার
  • প্রথম দেখার কথা শেয়ার করলেন সোশ্যালে

'ড্রইংরুমে ঢুকেই দেখি, রত্নার সঙ্গে একটি ছেলে বসে। ভীষণ শান্ত, ভদ্র চেহারা। ওর সঙ্গে কী একটি মেগায় অভিনয় করছে। তারই রিহার্সাল দিতে এসেছে। আমাকে দেখেই উঠে দাঁড়াল। থমকে গেছিলাম সেই মুহূর্তে। ওরকম ভাসা, ভাসা ডাগর চোখ পুরুষের হয়! ওই চোখ দুটোই সেদিন মাটিতে আমার পা দুটোকে যেন আটকে দিয়েছিল। ওর নম্রতা, ভদ্রতায় আবিষ্ট ততক্ষণে। সেই প্রথম দেখা, প্রথম আলাপ। এত বছর পরেও যেন জীবন্ত হয়ে চোখের সামনে ভাসছে'--- ইরফান খানের (Irrfan Khan) মৃত্যুর পর এই প্রথম মুখ খুললেন বর্ষীয়ান অভিনেতা নাসিরুদ্দিন শাহ (Naseeruddin Shah)। সোশ্যালে প্রথম দেখার স্মৃতি শেয়ার করে নাসির আরও জানিয়েছেন, চট করে তিনি কারোর মুখোমুখি হন না। সেদিনের সেই আলাপের কৃতিত্ব পুরোটাই প্রয়াত অভিনেতার ব্যক্তিত্বের।

ফুচকা দেখলেই আত্মহারা ইরফান! বাবার সেই স্মৃতি আঁকড়ে ছেলে

অসংখ্য অনুরাগীকে কাঁদিয়ে বুধবার চিরনিদ্রায় আচ্ছন্ন হন ইরফান খান (Irrfan Khan)। কোলনে সংক্রমণের কারণে মঙ্গলবার রাতেই মুম্বইয়ের কোকিলাবেন ধীরুভাই আম্বানি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় অভিনেতাকে। এর আগে 'পিকু' ছবির অন্যতম এই অভিনেতা বেশ কয়েক মাস ধরে মস্তিষ্কের টিউমারের সঙ্গে লড়াই করে কয়েক মাস আগে লন্ডনে চিকিৎসা শেষে মুম্বইয়ে ফিরে আসেন। ইরফানের স্মৃতি সযত্নে লালন করতে রয়ে গেলেন স্ত্রী সুতপা ও দুই ছেলে। মঙ্গলবারই অভিনেতা ইরফানের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়ে। যদিও সেই সময় অভিনেতার মুখপাত্র জানান, ইরফান খানকে ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। অবস্থা স্থিতিশীল। এই খবর শুনে কিছুক্ষণের জন্যে হলেও আশ্বস্ত হয়েছিলেন ইরফানপ্রেমীরা। কিন্তু শেষরক্ষা হল কই! শুধু শোকের সময় পিছিয়ে হল বুধবারের মেঘলা সকাল। 

'ঋষির চেয়েও ইরফানের চলে যাওয়া বেশি কষ্ট দিচ্ছে', অমিতাভ বচ্চন


বলিউডের সমস্ত তারকা, অসংখ্য অনুরাগী সোশ্যালে প্রয়াত অভিনেতাকে নিয়ে মুখ খুললেও নীরব ছিলেন নাসির। রবিবারের পোস্টে তিনি প্রথম দেখার কথা পোস্ট করে আরও লেখেন, কোনোদিন ইরফানকে আত্মগরিমায় ভুগতে দেখেননি। অথচ সমস্ত অভিনয়ে চূড়ান্ত বুদ্ধিমত্তার ছাপ। তাঁর এই নমনীয় অথচ আত্মবিশ্বাসী আচরণের অনুরাগী তিনি আজীবন থাকবেন। মনের এই জোর অনেক কষ্টে মেলে। তাই ইরফানের এই আত্মসংযম অনেক অভিনেতার ঈর্ষার বস্তু ছিল। অনেকেই বলেন, ইরফানের এই অভিনয় প্রতিভা সহজাত, ওপরওয়ালার দান। নাসিরুদ্দিনের দাবি, নিজেকে সারাক্ষণ ভেঙেচুড়ে, ঘষামাজা না করলে এই জায়গায় পৌঁছোনো যায় না! 


 


বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
 
Advertisement
Advertisement
Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com