হোম

রাজের টিপসে, ঋত্বিকের সঙ্গে অভিনয়ে আমি সত্যিই ‘পরিণীতা’: শুভশ্রী

  | July 14, 2019 13:24 IST (কলকাতা)
Interview

নিষ্পাপ রাইকিশোরী 'পরিণীতা' শুভশ্রী

নান্দীকার নাট্যগোষ্ঠীর সোহিনী সেনগুপ্তের সঙ্গে দিনের পর দিন ওয়ার্কশপ, স্বামী-পরিচালক-প্রযোজক রাজ চক্রবর্তীর ঘষামাজা আর ঋত্বিক চক্রব্রর্তীর মতো অভিনেতাকে পাশে পেয়ে নায়িকা এই মুহূর্তে বাংলা ছবির দুনিয়ার আক্ষরিক ‘পরিণীতা’। সাক্ষাতকারে এমনটাই জানালেন এনডিটিভিকে।

এই মুহুর্তে তাঁর মুখ কৈশোরের নিষ্পাপ সৌন্দর্যে মাখামাখি। পরে তাঁরই টিনএজ গার্ল থেকে ধীরে ধীরে উত্তোরণ সম্পূর্ণ মানবীতে। নারী জীবনের নানা শেড এভাবেই এক অঙ্গে ধারণ করেছেন ‘রাজশ্রী' শুভশ্রী (Subhashree Ganguly। নান্দীকার নাট্যগোষ্ঠীর সোহিনী সেনগুপ্তের সঙ্গে দিনের পর দিন ওয়ার্কশপ, স্বামী-পরিচালক-প্রযোজক রাজ চক্রবর্তীর (Raj Chakraborty) ঘষামাজা আর ঋত্বিক চক্রব্রর্তীর (Ritwik Chakraborty) মতো অভিনেতাকে পাশে পেয়ে নায়িকা এই মুহূর্তে বাংলা ছবির দুনিয়ার আক্ষরিক ‘পরিণীতা' (Parineeta)। সাক্ষাতকারে এমনটাই জানালেন এনডিটিভি (NDTV)কে। জেনে নিলেন উপালি মুখোপাধ্যায়

প্রশ্ন: যে মেয়ে ছবির শুরুতে ‘রাই কিশোরী'র মতোই উচ্ছ্বল, পাড়ার দাদা কাম টিউটারের প্রেমে রঙিন সেই মেয়েই পরে সম্পূর্ণা। নারী জীবনের একের পর এক ধাপ একটা ছবিতে বহন করার মতো জোর পেলেন কোথা থেকে?

উত্তর: সিক্রেটটা হল ১২ বছরের অভিজ্ঞতা। অভিনয়ের প্রতি পাগল প্রেম। আর সারাক্ষণ নতুন কিছু করার খিদে। এই ত্র্যহ স্পর্শেই আমি পরিণীতা। আসলে, আমরা সব সময়েই চাই একদম আলাদা কিছু করার। সেই ইচ্ছে তো সব সময় পূরণ হয় না। যখন হয় তখন ছক্কা মারার চেষ্টা করি। এখানে সেটাই হয়েছে। একই সঙ্গে বলব পরিচালক-প্রযোজক রাজ চক্রবর্তীর কথা। যিনি আমাকে এত ভালো একটা চরিত্রের জন্য বেছেছেন। ধন্যবাদ দেব নান্দীকারের সোহিনী সেনগুপ্তকেও। যিনি দিনের পর দিন আমার পাগলামি সহ্য করে ওয়ার্কশপ করিয়েছেন। আর হোমওয়র্ক তো আলাদা ভাবে করেইছি।

প্রশ্ন: কী কী হোমওয়র্ক করলেন?


উত্তর: প্রথমেই খুব ভালো করে গল্পটা পড়েছি। যতবার পড়েছি তত যেন ডুবে গেছি মেহুলের মধ্যে। সারাক্ষণ খালি মনে হত কী করলে লোকে মনে রাখবে মেহুলকে, শুভশ্রীকেও। এরপরেই আমি সোহিনীদির কাছে যাই। সোহিনীদি প্রথমেই বলেন, আজ থেকে তুই আর শুভশ্রী নস। মেহুল। জেগে-ঘুমিয়ে শুধু এটাই ভাব। তাহলেই দেখবি তোর অর্ধেক কাজ সারা হয়ে গেছে। এরপর পুরো স্ক্রিপটা মুখস্থ করে নিবি। বলতে দ্বিধা নেই, এটা ভীষণ চাপের ছিল আমার কাছে। গোটা একটা স্ক্রিপ্ট মুখস্থ কি চাট্টিখানি কথা! কিন্তু আমি করেছি। সবার সমস্ত সংলাপ একসময় ঠোঁটস্থ করে ফেলেছিলাম। আর সবচেয়ে বড় সুবিধে ছবিতে আমি নো মেক আপ লুকে। ফলে, বারেবারে মেকআপ করতে গিয়ে যে সময় নষ্ট হয় সেই ঝঞ্ঝাট থেকে বেঁচেছি। শুধু সানস্ক্রিন মেখে অভিনয় করেছি। ফলে, মনটা শুধুই মেহুলকে দিয়ে রেখেছিলাম।  তাই পরিণীতা আমার খুবই মনছোঁয়া।

প্রশ্ন: স্বামী যখন পরিচালক তখন সুবিধে কী কী? অসুবিধেই বা কী?

উত্তর: আমরা যখন সেটে পৌঁছোতাম রাজ তখন শুধুই প্যাশনেট পরিচালক। আর আমি ওঁর স্ত্রী নই, মেহুল। ফলে, স্বামী-স্ত্রী হিসেবে নিজেদের ভাবার মতো কোনও অবকাশ বা অবসর ছিলই না। তবে এটা বলতে পারি, আমরা যেহেতু দু-জনেই এই কাজের সঙ্গে একসঙ্গে যুক্ত ছিলাম তাই আমাদের দায়িত্ব যেন আরও বেড়ে গেছিল। একটাই কথা মনে হত, কেউ যেন আঙুল তোলার সুযোগ না পায়।

mpo3d8r

প্রশ্ন: ঋত্বিক চক্রবর্তীর সঙ্গে এটাই প্রথম কাজ? কেমন লাগল ঋত্বিককে?

উত্তর: বরাবরই জানতাম, ঋত্বিক চক্রবর্তী অভিনয়ে মাস্টারপিস। সবাই বলেওছিল, ভালো করে তৈরি হয়ে তবে দাদার মুখোমুখি হোস। ফলে, একটু ভয় পেয়ে গেছিলাম। নিজেকে তৈরি করতে ঋত্বিকদার প্রচুর ছবিও দেখেছি। পরে সেটে মুখোমুখি হতেই দেখলাম, ঋত্বিকদা একদম মাটির মানুষ। একদম বাবাইদার মতো। যাঁর সান্নিধ্যে থাকতে ইচ্ছে করে। ভয় চলে গেল তখনই। আর যতদিন শুটিং হয়েছে ততদিন ঋত্বিকদা বাবাইদা হয়েই ছিলেন। ফলে, অভিনয় করতে অসুবিধে হয়নি। পুরো শুট জুড়ে তাই সত্যি সত্যিই আমি চরিত্র বাবাইদার প্রেমে পরে গেছিলাম। যেটা সম্ভব হয়েছে ঋত্বিকদার অভিনয় গুণে।

প্রশ্ন: পরিণীতার প্রথম গান মুক্তি পেল। ছবির গান নিয়ে কিছু বলবেন?

উত্তর: দুটো গান আছে ছবিতে। দুটোরই সুর দিয়েছেন অর্ক। ভীষণ মিষ্টি প্রেমের গান। এর মধ্যে একটা গান গেয়েছেন শ্রেয়া ঘোষাল। ছবিকে সমৃদ্ধ তো করেইছে। আলাদা করে শুনতেও ভালো লাগবে।

প্রশ্ন: ট্রেলারে এক জায়গায় ঋত্বিককে মেহুল বলবে, ‘পড়ব, না পিঠ টিপব'? এরকম টিচার আপনি কোনোদিন পেয়েছিলেন?

উত্তর: আমার কপালে বরাবরাই বয়স্ক টিচার জুটেছে। তাই এই অভিজ্ঞতা নেই (হাসি)। তবে মেহুল করতে গিয়ে বুঝলাম, পাড়ার দাদারা পাড়াতুতো বোনেদের কীভাবে জ্বালায়। আমি কিন্তু খুব এনজয় করেছি পুরোটা।





বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
Advertisement
Advertisement