হোমবলিউড

বয়কটের মধ্যেই সম্মানিত, IIFA Awards 2020 পাচ্ছেন দীপিকা

Chhapaak মুক্তির পরে নতুন ঘোষণা, IIFA Awards ২০২০-এ সম্মানিত করা হবে Deepika Padukone-কে।

  | January 12, 2020 10:12 IST (ভোপাল)
Deepika Padukone

জীবনকৃতি পুরস্কার দীপিকার

Highlights

  • Chhapaak মুক্তি পেয়েছে শুক্রবার
  • বিজেপি দল বিরোধিতা করেছে ছবি মুক্তির
  • পরিচালক মেঘনা গুলজার

'মাস্তানির' মাস্তানি অব্যাহত। Chhapaak মুক্তির একদিন আগে ছবিটিকে করমুক্ত ঘোষণা করে Madhya Pradesh সরকার। মুক্তির পরে নতুন ঘোষণা, IIFA Awards ২০২০-এ সম্মানিত করা হবে Deepika Padukone-কে। প্রসঙ্গত, ২০০০ সাল থেকে শুরু হয়েছে এই বিশেষ পুরস্কার মঞ্চ ইন্টারন্যাশনাল ইন্ডিয়ান ফিল্ম অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডস। ২০ বছরে প্রথম এই অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানের আয়োজন করছে মধ্যপ্রদেশ সরকার। রাজধানী ভোপালের Indore-এ আগামী মার্চে পুরস্কৃত করা হবে ভারতীয় সিনে দুনিয়ার নামী দামি তারকাদের। পুরস্কারের তালিকায় দীপিকার নাম ঘোষণা করে শুধু অভিনেত্রীকেই সমর্থন জানাল না মধ্যপ্রদেশ সরকার। সিনেমার হাত ধরে বিজেপি বিরোধিতাও করল বিরোধী দল। কারণ, ছবি মুক্তির আগে JNU-তে গিয়ে আক্রান্তদের সমর্থন জানিয়ে শাসক দলের কোপের মুখে পড়েছিলেন অভিনেত্রী। BJP সমর্থক এবং নেটিজেনরা একে প্রচারের নয়া কৌশল তকমা দিয়ে অভিনেত্রী এবং তাঁর নতুন ছবিকে ব্যান করার আহ্বান জানিয়েছিলেন সোশ্যালে। নিমেষে যেন খলনায়িকা বানিয়ে দেওয়া হয়েছিল দীপিকাকে।

ব্যবসাতেও 'মাস্তানি' দীপিকার, প্রথম দিনেই ৬ কোটি Chhapaak-এর

JNU-তে কমবেশি ১০০ মুখোশধারীর হাতে পড়ুয়া-শিক্ষকেরা আক্রান্ত হওয়ার দু'দিন পরে গত মঙ্গলবার সেখানে ১৫ মিনিটের একটি সমাবেশে উপস্থিত হন Deepika Padukone। মুখে কিছু না বললেও করজোড়ে সমর্থন জানান ঐশী ঘোষ সহ সমস্ত আক্রান্তদের। সেই ছবি সোশ্যালে ছড়াতেই একে ছবি প্রচারের কৌশল বলে প্রচার করতে থাকেন বিজেপি সমর্থকেরা। কারণ, এই ছবি দিয়ে প্রযোজনায় প্রথম পা রাখতে চলেছেন অভিনেত্রী। তিনি গুণ্ডাদের সমর্থন করছেন, এই জিগির তুলো সোশ্যালে তাঁকে এবং তাঁর ছবিকে নিষিদ্ধ করার দাবি ওঠে। তখনই দীপিকাকে সমর্থন করতে এগিয়ে আসেন বলিউডের বহু বিশিষ্ট তারকা। মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদব, কমল নাথ, ভূপেশ বাঘেল সহ কংগ্রেসের একাধিক নেতা-মন্ত্রী। মধ্যপ্রদেশ, ছত্তিশগড়ে করমুক্ত হয় Chhapaak।  লখনউ সহ উত্তরপ্রদেশের বেশ কিছু প্রেক্ষাগৃহে সমাজবাদী পার্টির সদস্যদের জন্য স্পেশ্যাল স্ক্রিনিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়। 

এদিকে জেএনইউ-এ পা রাখার পরেই দীপিকার promotional video বন্ধ করে দেয় কেন্দ্রীয় উন্নয়ন মন্ত্রক। যদিও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির দাবি, এই দুইয়ের মধ্যে কোনও সম্পর্ক নেই। সেই মন্তব্যকে মান্যতা দিতেই মোদির অনুমতি নিয়ে দীপিকাকে সম্মানিত করার কথা ঘোষণা করে মধ্যপ্রদেশ সরকার। রাজ্যের জনসংযোগ মন্ত্রী পি সি শর্মা জানিয়েছেন, ৭০০ কোটি টাকা ব্যয়ে এই অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে। বিশ্বের ৯০টি দেশে এর সম্প্রচারণ হবে। প্রসঙ্গত, ২০০০ সাল থেকে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে অনুষ্ঠানটি অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। সরকারের আশা, এই অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠান রাজ্যের পর্যটন শিল্পকে আরও সমৃদ্ধ করবে।


অজয়-কাজলের কেমিস্ট্রি কি হারিয়ে দিতে পারে দীপিকাকে? কি বলছে বক্স অফিস?

যদিও মধ্যপ্রদেশ সরকারের এই ঘোষণার পর সাংসদ Gopal Bhargava টুইটে নিন্দনীয় ভাষায় আক্রমণ করেন দীপিকাকে। তাঁকে 'নাচনেওয়ালি' বলে উল্লেখ করে ভার্গব বলেন, দীপিকার কাজ নাচা। হয় তিনি সেটাই করবেন। নয়তো, রাজনীতির দুনিয়ায় পা রাখতে চাইলে সেটাকেই আঁকড়ে ধরবেন। কেন দুই নৌকোয় পা দিয়ে চলছেন!  একই সঙ্গে ছবি মুক্তির আগেই তাকে করমুক্ত ঘোষণা করায় সেই রাজ্যের এক সংবাদপত্রের একটি মন্তব্য আরও কুরুচিকর। সেখানে বলা হয়েছে, ছবি না দেখেই করমুক্তি ঘোষণা! এটি পর্ন ছবি হলেও বোধহয় ছাড় দিত সরকার।




(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)


বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
 
Advertisement
Advertisement
Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com