হোমবলিউড

'মি. ইন্ডিয়া' রিমেক: 'বাবা, শেখর কাপুরকে জিজ্ঞাসা করা হয়নি'! রুষ্ট সোনম

টুইটে অভিনেত্রীর ক্ষিপ্ত প্রশ্ন, কার অনুমতি নিয়ে পরিচালক (Ali Abbas Zafar) এমন পদক্ষেপ নিতে চলেছেন!

  | February 23, 2020 21:31 IST (নয়া দিল্লি)
Mr India Remake

বাবার অপমানে অসন্তুষ্ট সোনম (সৌজন্যে ইনস্টাগ্রাম)

Highlights

  • "খুব নীচু মনের পরিচয় এই সিদ্ধান্ত" ক্ষুব্ধ সোনম কাপুর
  • "আলি আব্বাস জাফরের টুইট দেখে আমরা জেনেছি", জানান তিনি
  • "কেউ আমাকেও জিজ্ঞেস করেননি" টুইট শেখর কাপুরের

পরিচালক আলি আব্বাস জাফর ১৯৮৭-র কাল্ট ছবি 'মিঃ ইন্ডিয়া' ( Mr India) রিমেকের কথা ঘোষণা করতেই রাগে ফেটে পড়লেন সোনম কাপুর (Sonam Kapoor)। টুইটে অভিনেত্রীর ক্ষিপ্ত প্রশ্ন, কার অনুমতি নিয়ে পরিচালক (Ali Abbas Zafar) এমন পদক্ষেপ নিতে চলেছেন! উনি তো সোনমের বাবা অনিল কাপুর (Anil Kapoor) বা ছবির পরিচালক শেখর কাপুর (Shehkhar Kapur) কাউকেই জিজ্ঞাসা করেননি। এভাবে ঘোষণা করে সবাইকে অপমানের পাশাপাশি নিজের নীচু মনের পরিচয় দিলেন আলি আব্বাস। সোনমের আরও দাবি, ছবির মূল দুই স্তম্ভ অনিল এবং শেখর কাপুর। এঁদের একবার বলে নেওয়া উচিত ছিল। সবাই তাঁকে, অনিল কাপুর আর শেখর কাপুরকে প্রশ্নের পর প্রশ্ন করে চলেছেন এবিষয়ে। যা করেছেন ঠিক করেছেন পরিচালক? প্রশ্ন তোলেন স্বয়ং অভিনেত্রী। 

'মি. ইন্ডিয়া'-র রিমেক বন্ধে আইনি হুমকি শেখর কাপুরের

সোনম আরও জানিয়েছেন, "অত্যন্ত দুঃখের বিষয়, এত পরিশ্রম করে যাঁরা কাজ করেছেন তাঁদের কোনও মূল্যই নেই আর। এই ছবি বাবা, শেখর কাপুরের কাছে ভীষণ দামি। বক্স অফিস বলছে, সেসময় এই ছবি ব্লকবাস্টার ছিল। "

পড়ুন সোনমের পোস্ট:



#FYI

A post shared by Sonam K Ahuja (@sonamkapoor) on


একই কথা জানিয়েছেন শেখর কাপুরও। টুইটে পরিচালকের দাবি, "মিস্টার ইন্ডিয়া ২ নামের এই ছবি সম্পর্কে কেউ আমাকে কিছুই জিজ্ঞাসা করেননি। বরং বিনা অনুমতিতে ছবির শিরোনাম তাঁরা ব্যবহার করছেন।। আমার বা প্রযোজকের অনুমতি ছাড়া কীভাবে এটা সম্ভব, জানা নেই।"


সোনমের টুইটের একদিন আগে সোশ্যালে আলি আব্বাস জাফর ঘোষণা করেন, জি স্টুডিওর সঙ্গে তাঁর মি. ইন্ডিয়া ট্রিলজি নিয়ে কথা হয়েছে। প্রযোজনা সংস্থা রাজি ছবিটিকে নতুন রূপে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য। যদিও অভিনেতা বাছাই পর্ব শুরু হয়নি। কারণ, স্ক্রিপ্ট চূড়ান্ত হয়নি। চিত্রনাট্য লেখা শেষ হলেই শুরু হবে অভিনেতা বাছাইয়ের পর্ব।  


'মি. ইন্ডিয়া'-য় অনিল কাপুর একজন বেহালা বাদক। যিনি সমুদ্রের ধারে একটি বাংলোয় থাকতেন। আশ্রয় দিয়েছিলেন একপাল অনাধ শিশুদের। সেখানেই রিপোর্টার হিসেবে আসেন সীমা। এই চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন শ্রীদেবী। সীমা অরুণ রূপী অনিলের বাংলোয় ঘর ভাড়া নিয়েছিলেন। সেখানেই এক বৈজ্ঞানিক আবিষ্কার 'ইনভিজিবল ম্যান'-এ রূপান্তরিত করেছিল অনিলকে।


বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
 
Advertisement
Advertisement
Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com