হোম

মুক্তির আগেই ভার্চুয়ালে Viral প্রফেসর শঙ্কু?

  | December 06, 2019 22:07 IST (কলকাতা)
Professor Shanku

ভার্চুয়ালে Viral প্রফেসর শঙ্কু? (সৌজন্যে SVF)

হলে বসে ছবি দেখার আগেই যদি ঘরে বসে কিংবা অফিস-কলেজ যাওয়ার পথে টুক করে ছোটট্ আড্ডা দিয়ে নিতে পারেন প্রফেসর শঙ্কুর সঙ্গে!

হলে বসে ছবি দেখার আগেই যদি ঘরে বসে কিংবা অফিস-কলেজ যাওয়ার পথে টুক করে ছোটট্ আড্ডা দিয়ে নিতে পারেন প্রফেসর শঙ্কুর (Professor Shanku) সঙ্গে! ব্যাপারটা বেশ হয়, তাই না? ছোট থেকে যাকে পড়ে বড় হলেন হট করে তিনি হাজির আপনার সামনে। গলা শুনতে পাচ্ছেন। আপনাকে তিনি প্রশ্ন করছেন। আপনার প্রশ্নের উত্তরও দিচ্ছেন। প্রফেসরের সঙ্গে তাঁর ডানহাত নকুড়বাবুকেও চাইলে পাবেন আলাপচারিতায়। কিন্তু....ভার্চুয়ালি (Virtual World)। অর্থাৎ সোশ্যালে, অ্যাপের মাধ্যমে। সেটাই বা কম কী? এই পর্যন্ত শুনে যদি ভেতরের ইচ্ছেটা মাথাচারা দিয়েই ওঠে তাহলে রয়েছে বাকি আরও। আপনার যদি সোশ্যাল বিহারে অরুচি জন্মায় তাহলে বইয়ের আকারেও এঁদের কীর্তিকলাপ জানতে পারেন। আর যদি নেট-পোকা হন তাহলে আনন্দের ষোলআনা আপনার মুঠোয়।

h1mb6h4

প্রফেসর শহ্কু বড় পর্দায় আসছেন---গত বছরে যখনই ঘোষণা হয়েছে বাঙালির উৎসাহের প্রায় সিংহভাগ জুড়ে বসেছে ছবিটি। বাঙালি শব্দটি এই জন্যই, শুধু সিনেপ্রেমী নন, আট থেকে আশি বুদ্ধিদীপ্ত বাঙালি এখনও প্রফেসর শঙ্কু শুনলেই হামলে পড়েন। তাই এই ছবির জন্য আলাদা ট্রিটমেন্ট তো দরকারই। তাই মুক্তির আগেই শঙ্কুকে জীবন্ত করেছে এসভিএফ-এর AR ( augmented reality) বা বই আকারে এবং VR ( virtual reality) ভার্চুয়াল দুনিয়ায়। অ্যাপের মাধ্যমে। প্রযোজক সংস্থার দাবি, ভারতে কোনও ছবির প্রচার এই প্রথম ভার্চুয়াল ওয়ার্ল্ডে হল। অবশ্য এই ছবি এটুকু দাবি রাখেই। কারণ, ছবির গল্পকার কিংবদন্তি পরিচালক সত্যজিৎ রায়। আর পরিচালক, সত্যজিৎ-পুত্র সন্দীপ রায়। যিনি দীর্ঘ সময় বাবার সহকারি থাকার পাশাপাশি নিজে বানিয়েছেন ফেলুদার কয়েকটি সিরিজ।


a2phm0cg


শঙ্করের আমাজন অভিযানের পর বাঙালি আরেকবার বিশ্বভ্রমণ সারতে চলেছে নকুড়বাবু আর প্রফেসর শঙ্কুর সঙ্গে। তাঁরা দর্শককে নিয়ে যাবেন এলডোরাডোয়। তার আগে এই অভিনব প্রচারে টিম শঙ্কু শুক্রবার সকালে ঘুরে গেলেন নন্দন ২। প্রফেসর ওরফে ধৃতিমান চট্টোপাধ্যায়, নকুড়বাবু ওরফে শুভাশিস মুখোপাধ্যায় জানালেন, বইয়ের ওপর শঙ্কু অ্যাপস ধরলেই কীভাবে শোনা যাবে তাঁদের কথোপকথন। দেখা যাবে ইন্ডিয়া থেকে এলডোরাডোর রোড ম্যাপ। দেখতে পাবেন প্রফেসরের ল্যাবরেটরি। ওঁরা সরাসরি কথা বলবেন আপনাদের সঙ্গে। অ্যাপটি ডাউনলোড করতে পারবেন মুঠোফোনে। সঙ্গে রয়েছে আরও গেমস। দেখে নিন কীভাবে এই বুক আর অ্যাপসের সাহায্যে আপনি হয়ে উঠবেন অভিযানের অংশ---



২০ পাতার এই বই, অ্যাপ, মুখোশের মতো যন্ত্র পাওয়া যাবে সায়েন্স সিটি, ইকো পার্ক, কলকাতার সমস্ত মলে। আগামী ১৩ ডিসেম্বর থেকে। ছবি সম্বন্ধে সন্দীপ রায়ের মত, বাবা সময়ের অনেক আগে শঙ্কুকে এনেছিলেন। তাই প্রফেসর শঙ্কু আজও প্রাসঙ্গিক। আর সময়ের থেকে এগিয়ে বলেই বাবার সময়ে তাঁকে ক্যামেরাবন্দি করা যায়নি উপযুক্ত টেকনোলজির অভাবে। সেই অভাব মিটতেই বড়দিনের বড় ছবি প্রফেসর সঙ্কু আসছে ক্রিস্টমাস মাতাতে। ছবির মুক্তি ২০ ডিসেম্বর।


বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
Advertisement
Advertisement