হোমটলিউড

মেয়ে-বাবা এক ফ্রেমে! ফের একসঙ্গে দেখা যাবে স্বস্তিকা-সন্তু মুখোপাধ্যায়কে

  | April 07, 2020 14:17 IST (কলকাতা)
Santu Mukherjee

মেয়ের 'নাথ' যখন বাবা

সন্তু মুখোপাধ্যায়ের পারলৌকিক কাজ শেষ হওয়ার দিন স্বস্তিকা প্রথম পোস্ট করেন সোশ্যালে। সেই পোস্টেই তিনি বাবাকে হারিয়ে নিজেকে ‘অ-নাথ’ বলেন।

১১ মার্চ সেই অভিশপ্ত দিন। যেদিন আচমকাই পরলোকে পাড়ি জমান প্রবীণ অভিনেতা সন্তু মুখোপাধ্যায় (Santu Mukherjee)। ২০১৭-য় চলে গেছেন তাঁর স্ত্রী গোপা মুখোপাধ্যায়। মা-বাবা দু'জনকেই হারিয়ে সাময়িক স্তব্ধ হয়ে গেছিলেন তাঁদের বড় মেয়ে স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায় (Swastika Mukherjee)। মায়ের অভাব তিনি তবু পূরণ করছিলেন মায়ের শাঁখা, শাড়ি শুটিংয়ে পরে। কিন্তু বাবার অভাব কী দিয়ে মেটাবেন? তাঁর জীবনে যতবার ঝড় উঠেছে, বুক দিয়ে আগলেছিলেন যে তাঁর বাবা সন্তু-ই। তাই বাবা চলে যাওয়ার প্রয়াত অভিনেতার কাছের-দূরের পরিচিতজনেরা তাঁকে নিয়ে নানা অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছেন। তখনও আশ্চর্যজনকভাবে চুপ ছিলেন স্বস্তিকা। ফাঁকা ছিল তাঁর সমস্ত সোশ্যাল মাধ্যম। সম্প্রতি তিনি জানিয়েছেন, বাবাকে নিয়ে ফিরছেন তিনি। লকডাউনের (Lockdown) সময়ে!



পরিচালক অভিনেতা সুমন মুখোপাধ্যায়ের ছবি অসমাপ্ত-তে এক ফ্রেম শেয়ার করেছিলেন সন্তু-স্বস্তিকা।সম্পর্কের নানা স্তরের গল্প বলা এই ছবিতে এঁরা ছাড়াও অভিনয় করেছেন পাওলি দাম, ব্রাত্য বসু, ঋত্বিক চক্রবর্তী। সেই ছবি নেটফ্লিক্সে দেখানো হচ্ছে ৯ এপ্রিল পর্যন্ত। মেয়ে-বাবার ডুয়েট দেখতে অভিনেত্রী তাই অনুরোধ জানিয়েছেন সবাইকে।





২৯ মার্চ 'কিয়া অ্যান্ড কসমস'-এর জন্য ক্রিটিক চয়েস সেরা অভিনেত্রীর সম্মান পান তিনি। সেই সম্মানও তিনি উৎসর্গ করেন বাবা সন্তু মুখোপাধ্যায়কে। বাবার আগ্রহেই তাঁর অভিনয় দুনিয়ায় পা রাখা। যদিও বাবার নামে নয়, নিজের প্রতিভায় নিজের পরিচয় গড়ে তোলেন তিনি। অভিনয় ছাড়াও খুব ভালো রবীন্দ্রসঙ্গীত গাইতে পারতেন প্রয়াত অভিনেতা। তিন তাই নিজে পর্য়াত বিখ্যাত সঙ্গীতশিল্পী সাগর সেনের ছেলে প্রমিত সেনের সঙ্গে বিয়ে দেন বড় মেয়ের। স্বস্তিকা তখন মাত্র ১৬! সেই বিয়ে সুখের হয়নি। একমাত্র মেয়েকে নিয়ে এরপরেই তিনি চলে আসেন বাবার কাছে।


সন্তু মুখোপাধ্যায়ের পারলৌকিক কাজ মিটে যাওয়ার পর রাত ১১টা ২৩ মিনিটে প্রথম নীরবতা ভাঙেন স্বস্তিকা। সোশ্যালের সব মাধ্যমে সেই পোস্টেই বাবাকে হারিয়ে নিজেকে ‘অ-নাথ' বলেন।

‘দিন মজুর, যৌনকর্মীরা কীভাবে জ্বালবেন আলো, ভেবেছেন মোদি?' প্রশ্ন স্বস্তিকার

সন্তু মুখোপাধ্যায়ের অভিনয় জীবন শুরু ১৯৭৫-এ, তপন সিংহের 'রাজা' ছবি দিয়ে। যদিও তাঁর প্রথম অভিনয় তরুণ মজুমদারের 'সংসার সীমান্তে'তে। এরপর তিনি অভিনয় করেছেন গৌতম ঘোষের মতো জাতীয় পুরস্কারজয়ী পরিচালকের ছবিতে। মহানায়ক উত্তরকুমারের সঙ্গেও অভিনয় করেছেন 'দেবদাস', 'খনা বরাহ', 'কলঙ্কিনী কঙ্কাবতী'-তে। এর মধ্যে শেষ ছবির পরিচালক ছিলেন স্বয়ং মহানায়ক। পরে প্রায় শতাধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করে বাঙালির মন জয় করেছেন বরিষ্ঠ অভিনেতা। জনপ্রিয় ছবির তালিকায়---- হারমোনিয়াম, চাঁদের কাছাকাছি, গণদেবতা, ভালোবাসা ভালোবাসা, পম্পা ইত্যাদি। সন্তু মুখোপাধ্যায়কে শেষ দেখা গেছে লীনা গঙ্গোপাধ্যায়, শৈবাল মুখোপাধ্যায় পরিচালিত 'সাঁঝবাতি'তে। তার ঠিক আগেই তাঁকে দেখা গেছে নন্দিতা রায়-শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের গোত্র ছবিতে। দুটি ছবিই দর্শক প্রসংশিত।

‘রাজা'র মহাপ্রস্থানে বাকরুদ্ধ তরুণ মজুমদার, ‘‘আর কে ‘লিলু' ডাকবে?'' বিষণ্ণ লিলি চক্রবর্তী

ছোটপর্দার মাধ্যমে দর্শকের অন্তরে সন্তু মুখোপাধ্যায়ের ছিল নিত্য আনাগোণা। জন্মভূমি, অন্দরমহল, কুসুমদোলা, ইষ্টিকুটুম-এ তাঁর অভিনয় অবিস্মরণীয়। তাঁর শেষ কাজ মোহর। জানুয়ারি পর্যন্ত অসুস্থতার মধ্যেও কাজ করেন তিনি। সন্তু মুখোপাধ্যায়ের মৃত্যুর সঙ্গে সঙ্গে অবসান বাংলা চলচ্চিত্র দুনিয়ার একটি যুগের। মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস প্রবীণ অভিনেতাকে শেষশ্রদ্ধা জানান তাঁর বাড়িতে গিয়ে।




বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
Advertisement
Advertisement
Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com