হোমমিউজিক

পাঁচিশ বছর বয়স পর্যন্ত আত্মহত্যার কথা ভাবতাম, বললেন এ আর রহমান

‘‘আমার নিজের আসল নামটা কখনওই পছন্দ ছিল না। কিন্তু কেন তা জানতাম না। আমার খালি মনে হত এটা আমার পার্সোনালিটির সঙ্গে যায় না। আমি নিজের গোটা অতীতটাই বদলে ফেলতে চাইতাম।’’— বলেন তিনি।

  | November 04, 2018 18:05 IST (Mumbai)
এ আৱ রহমান

এ আৱ রহমান

Highlights

  • "আমাদের মনে হয় আমরা ভাল নেই," বলেন এ আর রহমান
  • "আমি বাবাকে হারিয়েছি" বলেন তিনি
  • "১২ থেকে ২২ এৱ মধ্যে আমার সব শেখথা হয়ে গিয়েছিল," বলেন তিনি

দেশ এ আর রহমানের মতো এমন প্রতিভাকে চিনতে পারার আগে জীবনে একটা সময় পর্যন্ত তিনি নিজেকে ব্যর্থ ভাবতেন আর প্রতিদিনই ভাবতেন নিজেকে শেষ করে দেবেন।

অস্কার বিজয়ী এই কম্পোসার বলেন, বলেন কেরিয়ারের প্রথম দিকের ব্যর্থতাই তাকে আরও শক্ত করেছে। ‘‘প্রায় ২৫ বছর পর্যন্ত আমি আত্মহত্যার কথা ভাবতাম। আমাদের মতো বেশির ভাগ তাই ভাবে। আমি বাবাকে হারিয়েছিলাম, আরও নানা নেতিবাচক বিষয় ঘটছিল। কিন্তু সেগুলো একদিক থেকে আমাকে আরও মজবুত করেছে। যে কোনও জীবনেরই এক দিন শেষ আছে। তা হলে ভয় কীসের?''— পিটিআই-কে বললেন রহমান।

এখন ৫১ বছর বয়সী এই কম্পোসারের জীবনের মো ঘুরে যায় যখন তিনি নিজের রেকর্ডিং স্টুডিও পঞ্চথন রেকর্ড ইন তৈরি করেন চেন্নাইয়ে। ‘‘তার আগে সব কিছুই কেমন মন খারাপ করা ছিল। আমার হাতে প্রচুর সিনেমা ছিল না। আমি ৩৫টার মতো ছবি পেয়ে মাত্র ২টোতে কাজ করেছিলাম। সবাই অবাক হত যে কী করে তুমি সার্ভাইভ করবে? তোমার কাছে সব আছে, সেগুলো আঁকড়ে ধরো। কিন্তু আমি পারিনি। যা পাবো তাই খেয়ে নেবো এমনটা পারিনি। তার চেয়ে অল্প খাবো কিন্তু তৃপ্তি করে খাবো এটাই ভাবতাম।''—বললেন রহমান।

তিনি নিজের দুঃসময় সম্পর্কে ড্রিম: দ্য অথোরাইজড বায়োগ্রাফি অফ এ আৱ রহমান-এও বলেছেন। কৃষ্ণা ত্রিলোকের লেখা ওই বায়োগ্রাফিটি শনিবারই প্রকাশিত হয়। রহমানের বয়স যখন ৯ তখন তার বাবা আর কে শেখর (সিনেমার মিউজিক কম্পোজার) মারা যান। পেট চালাতে তার বাদ্যযন্ত্রগুলি বিক্রি করতে বাধ্য হয় পরিবার। রহমান এই বয়সেই মিউজিককে বেছে নেন।


‘'১২ থেকে ২২ বছরের মধ্যে আমার সবগুলো শেখা শেষ হয়ে গিয়েছিল। ফলে বোরিং কাজ করতে ইচ্ছা হত না।''—বললেন তিনি। কুড়ি বছর বয়সে ১৯৯২ সালে মণিরত্নমের রোজা-তে ডেবিউ করার আগে রহমান সপরিবারে সুফি গ্রহণ করেন। এর পরে শুধু অতীতকে ভুলেই নয়, নিজের জন্ম নাম দিলীপ কুমারকেও তিনি বাদ দেন।

‘‘আমার নিজের আসল নামটা কখনওই পছন্দ ছিল না। কিন্তু কেন তা জানতাম না। আমার খালি মনে হত এটা আমার পার্সোনালিটির সঙ্গে যায় না। আমি নিজের গোটা অতীতটাই বদলে ফেলতে চাইতাম।''— বলেন তিনি।

রোজার পরেই রহমান ইন্ডাস্ট্রিতে রহমান রাতারাতি খ্যাতি পেয়ে যান। তিনি এরপরে মিউজিকের ব্যাকরণটাই পাল্টে দেন। ‘‘নিজেকে শোনাটা খুব জরুরি। সাধারণত আমরা এটা করি না। এ জন্য আমি রাতে আর ভোররাতে কাজ করি। কারণ এ সময় কাজের কোনও ডিস্টার্ব হয় না।''


(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদিত করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে.)


বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
 
Advertisement
Advertisement
Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com