হোমটলিউড

ট্রিলজিতে বাঁধা পড়ছে ‘সময়’, অতনু ঘোষের ‘রবিবার’ মেলাচ্ছে জয়া-প্রসেনজিৎকে

  | September 12, 2019 14:41 IST (কলকাতা)
Atanu Ghosh

রবিবার-এ মুখোমুখি প্রসেনজিৎ-জয়া

এক রবিবার (Robibar) মুখোমুখি দুই পূর্ব পরিচিত। যাঁদের ঘিরে এক অতীত আছে। তেমন দুই মানুষ যদি ঘটনাচক্রে একে অন্যের সামনে এসেই পড়েন, কেমন হবে সেই সাক্ষাৎ?

পরিচালক অতনু ঘোষ আর প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় জুটি বাঁধলে ইতিহাস তৈরি হয়। ছবি ‘ময়ূরাক্ষী' তার সাক্ষী। জাতীয় পুরস্কার জয়ী এই ছবি বাবা-ছেলের অনেক না বলা কথাকে সামনে এনেছিল। পরিচালক কিন্তু তাতে তৃপ্ত নন। তাই তিনি এক সম্পর্ক থেকে সরে নিজেকে বাঁধলেন ‘বিনি সুতোয়'। এই ছবিতে রয়েছে অচেনা দুই মানুষের সম্পর্ক। যাঁরা একে অন্যকে চেনেন না। এঁদের চরিত্রে ঋত্বিক চক্রবর্তী-জয়া এহসান। তারপরেও বোধহয় অতনুর মনে হয়েছে ‘এহো বাহ্য! কহ আরও ওর'। সেই তাগিদ থেকেই তিনি ফের আরও একটি সম্পর্কের গল্পে। এক রবিবার (Robibar) মুখোমুখি দুই পূর্ব পরিচিত। যাঁদের ঘিরে এক অতীত আছে। তেমন দুই মানুষ যদি ঘটনাচক্রে একে অন্যের সামনে এসেই পড়েন, কেমন হবে সেই সাক্ষাৎ? সেই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতেই পরিচালকের আগামী ছবি রবিবার। যেখানে, এই দুই পূর্ব পরিচিত প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় এবং জয়া এহসান। এঁরা আলাদা ভাবে পরিচালকের দুটি ছবিতে কাজ করলেও জুটি বাঁধেননি। তাঁদেরকে এক ফ্রেমে বন্দি করে ফের মাইলস্টোন তৈরির পথে অতনু, খবর পাওয়ার পরেই এমনটাই মতাতমত সিনেবোদ্ধাদের। 

crp2svog


'বিনিসুতোয়' শেষ হতে না হতেই পরের ছবিতে হাত দিলেন অতনু। এমনকি শুটিংও শুরু হয়েছে গত সোমবার থেকে। কিসের তাগিদে বছরে নিজের নিয়ম ভেঙে বছরে দুটো ছবি তৈরিতে ব্যস্ত হলেন? এই প্রশ্ন রাখতেই বিনীত জবাব, যাঁরা সাত বা আটের দশকে জন্মেছেন তাঁরা একটা বিশাল পরিবর্তনের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন। আড্ডা, বন্ধুত্ব, পরস্পরের সঙ্গে দেখাসাক্ষাৎ, সময় কাটানো---সবই এখন যান্ত্রিক। সৌজন্যে মুঠোফোন, ভার্চুয়াল দুনিয়া যন্ত্র সভ্যতা। এই সম্পর্ক কতটা খাঁটি এবং অন্তরের, বলা মুশকিল। তবে এই ওলোটপালটে পাল্টে যাচ্ছে অনেক সম্পর্ক। যেমন কালের নিয়মে বদলেছে বাবা-ছেলের আন্তরিক টান। ছেলে নিজের মতো বিদেশে সেটল। বাবা একাকী দেখভাল করার জন্য রাখা অপরিচিতার হাতে। এটা ছিল ময়ূরাক্ষীর বিষয়। দ্বিতীয় ছবিতে এসেছেন দুই একে অন্যের অপরিচিত। তাঁরা আজকের দিনে মুখোমুখি হলে কী ধরনের সম্পর্কে বাঁধা পড়েন বা সেই সম্পর্ক কেমন দাঁড়ায়, সেই নিয়ে বিনিসুতোয়। যার ডাবিং গত মাসে শেষ হয়েছে। সেই ছবি করতে করতেই মনে হয়েছে, হারিয়ে যাওয়া সম্পর্ক ফের সামনে এলে কী ঘটতে পারে সেটাও বলা দরকার দর্শককে। সেই তাগিদ থেকে আগামী ছবি। যেখানে জুটি হিসেবে এই প্রথম দেখা যাবে জয়া এহসান, প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়কে। তিনটি ছবিতেই দু-জন করে মানুষ একে অন্যের মুখোমুখি হচ্ছেন। এবং এই পরিবর্তিত সময়কে বাঁধতে গিয়েই এই ট্রিলজি তৈরির ভাবনা।

i25iqoig


বিনিসুতোয় আর রবিবারের নায়িকা এক। চরিত্রেও কি কোনও মিল আছে? একেবারেই না, জানালেন অতনু। তাঁর দাবি, 'বিনিসুতোয়' 'শ্রাবণী' জয়া অনেকটা মানিয়ে চলার পক্ষপাতী বা সময়ের পরিপ্রেক্ষিতে মানিয়ে নেয়। 'রবিবার'-এর 'সোহিনী' ততটাই দৃঢ়চেতা। আধুনিক মনের মানুষ। একই ভাবে আর্যনীল (ময়ূরাক্ষী) আর অনিলাভ (রবিবার) কোথাও যেন হালকাভাবে বিনিসুতোয় গাঁথা। কিন্তু কেউই কারোর ছায়াসঙ্গী নন।

fojgbd9g


সম্প্রতি, ছবির ফার্স্ট লুক সামনে আনলেন টিম রবিবার। জয়া এহসান এবং প্রসেনজির চট্টোপাধ্যায় ভীষণ খুশি জুটি বাঁধতে পেরে। দু-জনেরই মত, তাঁরা দীর্ঘদিন অপেক্ষার পর এই সুযোগ পেলেন। এই সুযোগের সদ্ব্যবহার করার পুরোমাত্রায় চেষ্টা করবেন। এবং এই সুযোগ দেওয়ার জন্য উভয়েই ধন্যবাদ দিলেন পরিচালক অতনু ঘোষকে। একই সঙ্গে বুম্বাদার সংযোজন, রবিবার আমাদের মতো অভিনেতাদের জীবনে প্রায় আসেই না। তাই আচমকা চলে এলে খুব খুশি হই। আর সেই দিনে যদি হারিয়ে যাওয়া মানুষ সামনে আসেন? কী করবেন তিনি? মিষ্টি হাসির সঙ্গে রোম্যান্টিক উত্তর, 'তাকে ধরে রাখব জোর করে। চলে যেতে চাইলে বাধা দেব। যে কথা আগে বলা হয়নি, শোনাব তাকে। এরপরেও কি সেই দিন সে আমার পাশে থাকবে না!'




বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
Advertisement
Advertisement
Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com