হোম

বাংলায় অস্ত্রপাচার রুখতে ‘রাইফেল’ নিয়ে আসছেন আইপিএস অর্পিতা!

  | June 07, 2019 17:20 IST (কলকাতা)
Rifle

বেআইনি অস্ত্র পাচার শুধুই যে দেশের সীমান্তে হয়, তা নয়। রাজ্যে, জেলায়, এমনকি শহরের বুকে প্রতি মুহূর্তে ঘটে চলেছে এমন শাস্তিযোগ্য অপরাধ। যার কিছু উঠে আসে পত্র-পত্রিকায়। অধিকাংশই থেকে যায় চোখের আড়ালে। ফি-দিনের ঘটে যাওয়া এই অপরাধ নিয়ে সাধারণ মানুষ ততটা ওয়াকিবহাল না হলেও নাড়া দিয়েছে পরিচালক রাজর্ষি দে-কে। তাই শুভ নববর্ষ, পূর্ব-পশ্চিম-দক্ষিণ-এর পর রাজর্ষির আগামী ছবির বিষয় দেশের এই জ্বলন্ত সমস্যা।

খবরের কাগজ খুললেই প্রায় প্রতিদিনই একটা খবর চোখে পরে সবার। দেশের সীমান্ত জুড়ে ব্যাপক ভাবে পাচার করা হচ্ছে বেআইনি অস্ত্র (Illegal Arms) । যার জ্বলন্ত উদাহরণ, খাগড়াগড় কাণ্ড। এছাড়া, দেশ-রাজ্য-শহর জুড়ে নানা সময় হিংসাত্মক কার্যকলাপ ঘটে যাওয়ার নেপথ্যেও রয়েছে এমন ভয়ঙ্কর অপরাধ। শুনলে অবাক হবে, এই বেআইনি অস্ত্র পাচার শুধুই যে দেশের সীমান্তে হয়, তা নয়। রাজ্যে, জেলায়, এমনকি শহরের বুকে প্রতি মুহূর্তে ঘটে চলেছে এমন শাস্তিযোগ্য অপরাধ। যার কিছু উঠে আসে পত্র-পত্রিকায়। অধিকাংশই থেকে যায় চোখের আড়ালে। ফি-দিনের ঘটে যাওয়া এই অপরাধ নিয়ে সাধারণ মানুষ ততটা ওয়াকিবহাল না হলেও নাড়া দিয়েছে পরিচালক রাজর্ষি দে-কে (Raajorshee De)। তাই শুভ নববর্ষ, পূর্ব-পশ্চিম-দক্ষিণ-এর পর রাজর্ষির আগামী ছবির বিষয় দেশের এই জ্বলন্ত সমস্যা।

যদিও এই সমস্যা নিয়ে আগেই কলম ধরেছিলেন জনপ্রিয় লেখক রূপক সাহা। তাঁর ‘রাইফেল' গল্পে। সেই গল্পের নামে নাম দিয়েই রাজর্ষি বানাচ্ছেন তাঁর আগামী ছবি ‘রাইফেল'। যেখানে দেশের একটি মহিলা ক্রিকেট দল একসময় জড়িয়ে পড়বে এই ধরনের বেআইনি কাজে। আর শহরের বুক থেকে এই অপরাধ নির্মূল করতে মাঠে নামবেন দুই আইপিএস অফিসার। যাঁদের নেতৃত্বে আর এক প্রাক্তন আইপিএস অফিসার। যাঁর ফিলোজফি, প্রশাসনের মধ্যে থেকে তার ধারা বদলাও। রাইফেল কি পারবে সময় মতো গর্জে উঠতে? প্রশাসন কি পারবে দেশের বুক থেকে এই অপরাধ মুছতে? সব প্রশ্নের উত্তর নিয়ে এই বছরের শীতে প্রেক্ষাগৃহে আসছে অবিঘ্ন ফিল্মসের ‘রাইফেল'।

ছবিতে ক্রিকেট দলের অধিনায়রক হিসেবে দেখা যাবে মডেল-অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা রতি পালকে। দলের নামজাদা ক্রিকেটার হচ্ছেন তনিকা বসু। আর রাইফেল হাতে দুষ্টের দমন করতে দেখা যাবে টলিউডের ফার্স্ট লেডি অর্পিতা চট্টোপাধ্যায়কে (Arpita chatterjee)। তাঁকে সাহায্য করবেন পূজারিনী ঘোষ (Pujarini Ghosh)। আর এই দুই আইপিএস অফিসারকে নেতৃত্ব দেবেন পরিচালক-অভিনেতা কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায়। এছাড়াও, গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করছেন রুদ্রনীল ঘোষ ও সাংসদ বাবুল-সুপ্রিয়।

এত বড় স্টার কাস্ট কী করে সামলালেন পরিচালক? এই প্রশ্নের উত্তরে রাজর্ষির হাসিমাখা জবাব, আমি প্রথম ছবি থেকেই বিগ স্টার কাস্ট নিয়ে কাজ করছি। আমি ওঁদের কী করে সামলাচ্ছি সেটা বড় কথা নয়, ওঁরা বিশ্বাস করে আমার সঙ্গে কাজ করছেন সেটাই অনেক বড় কথা। আর এই নিয়ে পরপর তিনটি ছবিতে অর্পিতা চট্টোপাধ্যায়, রুদ্রনীল ঘোষ আর কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায় কাজ করলেন। এটা অবশ্যই আমার ভাগ্য। শুধুমাত্র চিত্রনাট্য শুনে অর্পিতাদি অন্য ছবি সরিয়ে আমাকে হ্যাঁ বলেছেন। আর এর আগে ওঁকে কেউ অ্যাকশন থ্রিলারে দেখেননি।


ছবির চিত্রনাট্য লিখেছেন যকের ধন, হইচই-য়ের ব্যোমকেশ, আলিনগরের গোলোকধাঁধাঁ-র চিত্রনাট্যকার সুগত বসু। ছবিতে সুর দিয়েছেন আশু। কণ্ঠে রূপঙ্কর বাগচি, ইমন চক্রবর্তী, জয়তী চক্রবর্তী, নিকিতা গান্ধি এবং বাবুলসুপ্রিয় (BabulSupriyo)।




বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
Advertisement
Advertisement