হোমটিভি

মদন বাণে বিদ্ধ সিম্পি! বাঁচতে ডাকছে ‘হে ভগবান’?

  | December 21, 2019 19:31 IST (কলকাতা)
Zee Bangla

প্রেমে পড়েছে সিম্পি?

তার দৃঢ় বিশ্বাস ভগবানের একচোখোমিতেই ছোটবেলায় মা-বাবাকে হারিয়েছে সে।

বাবা নামজাদা পুরোহিত। এপাড়া, ওপাড়া সবাই একডাকে চিনত তাঁকে। ভীষণ সাত্ত্বিক মানুষ। প্রাণ ঢেলে পুজা-আচ্চা করতেন। এহেন বাবার মেয়ে সিমলিপাল মুখোপাধ্যায় এক্কেবারে উল্টো। কারণ, তার দৃঢ় বিশ্বাস ভগবানের একচোখোমিতেই ছোটবেলায় মা-বাবাকে হারিয়েছে সে। আস্তে আস্তে বড় হওয়ার পর প্রথমেই তার মাথায় ঢুকল রোজগারের চিন্তা। কিচ্ছু কাজ জানে না সে। কী করে পেট চালাবে? ভগবানের ওপর হাড়চটা হয়েও বাবার পুরোহিতগিরিকেই সে নিজের পেশা বাছল। শুধু পুরো প্রক্রিয়া বদলে নিল নিজের মতো করে।

বছর শেষে নতুন স্বপ্ন, ‘কী করে বলব তোমায়'?

বাবার মতো মোটেই সে শুদ্ধ উচ্চারণে মন্ত্র আওড়াত না। ভুলভাল মন্ত্র বলত। এবং কিছুদিনের মধ্যে খেয়াল করে দেখল, এসব নিয়ে কারোর মাথাব্যথাও নেই! কেউ কান পেতে শোনেই না ভুল মন্ত্র বলল না ঠিক! এই বুদ্ধিকে কাজে লাগিয়ে এবার সিম্পি টপাটপ বাড়ি ধরছে পুজো করবে বলে। এভাবেই যেন বিদ্রোহ করবে ভগবানের বিরুদ্ধে। 

u1b7c9j

ভুল মন্ত্র পৃথিবীতে কোনও সমস্যা তৈরি না করলেও তোলপাড় শুরু হল স্বর্গরাজ্যে। এমডি গড,  বি ডি কৃষ্ণ তাঁর সহকারিকে পাঠালেন মত্যে। ব্যাপারটা দেখতে। তাঁর প্রভাবে সিম্পির তো ভগবানে বিশ্বাস জন্মালই, ভুল মন্ত্র বলাও ছেড়ে দিল এক্কেবারে। উপরন্তু প্রেমের দেবতা মদনবাণে বিদ্ধ করলেন সিম্পিকে। সেই সঙ্গে এও দেখলেন, পৃথিবীতে সত্যি ভালোবাসার কোনও কদরই নেই! এবার কোমর বেঁধে একসঙ্গে নামল মানুষ আর ঈশ্বর। কারণ, একে অন্যের ওপর পুরোপুরি নির্ভরশীল। কী হল শেষেমেশ? ভগবান-মানুষের যৌথ অভিযান দেখতে চোখ রাখুন কাল জি বাংলায় দুপুর একটায়। যেখানে অরিজিনালসে দেখতে পাবেন রাজদীপ ঘোষের ছবি  ‘হে ভগবান'। সঞ্জয় ভট্টাচার্যের এই কমেডি জঁরের গল্পে অভিনয় করেছেন সৌরভ দাস, রূপসা চট্টোপাধ্যায়, অরিন্দম গাঙ্গুলি এবং আরও অনেকে।




বাংলা ভাষায় বিশ্বের সকল বিনোদনের আপডেটস তথা বাংলা সিনেমার খবর, বলিউডের খবর, হলিউডের খবর, সিনেমা রিভিউস, টেলিভিশনের খবর আর গসিপ জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube
Advertisement
Advertisement
Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com